kalerkantho


নিজের শততম ম্যাচ স্মরণীয় করে রাখতে চান সুয়ারেজ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ জুন, ২০১৮ ১৪:০৬



নিজের শততম ম্যাচ স্মরণীয় করে রাখতে চান সুয়ারেজ

বিশ্বকাপে একজন খেলোয়াড় যেকোনোভাবেই পত্রিকার পাতায় হেডলাইন হয়ে আসতে পারেন। এবার তেমনই এক সুযোগ এসেছে উরুগুয়ের তারকা লুইস সুয়ারেজের সামনে। আগেও তাকে নিয়ে গণমাধ্যও বেশ কয়েকবার সড়ব ছিল, যদিও সেই ঘটনাগুলো ছিল সবই নেতিবাচক। 

আগামীকাল রোস্তোভে গ্রুপ-এ’তে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছে উরুগুয়ে ও সৌদি আরব। এই ম্যাচের মাধ্যমে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে শততম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবেন সুয়ারেজ। আর বার্সেলোনার এই তারকার সামনে শততম ম্যাচ স্মরণীয় করে রাখার দারুণ এক সুযোগ রয়েছে।

এই ম্যাচে জয়ের মাধ্যমে উরুগুয়ের জন্য নক আউট পর্বের টিকিট নিশ্চিত হতে পারে। কিন্তু যেখানে সুয়ারেজের মত খেলোয়াড় দলে রয়েছেন সেখানে সমর্থকরাও জানেন মাঠ ও মাঠের বাইরে সবসময়ই দল তাকে নিয়ে সতর্ক অবস্থায় থাকে। গত দুটি বিশ্বকাপে সুয়ারেজের বিদায়টা অন্তত সুখকর হয়নি।

২০১০ সালে ঘানার বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে নির্ধারিত সময় ১-১ গোলে ড্র থাকাকালীন অতিরিক্ত সময়ে ১২০ মিনিটে লাল কার্ড দেখে মাঠ ত্যাগে বাধ্য হয়। শেষ মিনিটে ঘানার একটি শট গোলপোস্টের মাঝখান থেকে হাত দিয়ে আটকে দিয়ে লাল কার্ড দেখেন সুয়ারেজ। যার ফলে পেনাল্টি পায় ঘানা। কিন্তু স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি টাই ব্রেকারে গড়ায়। যদিও পেনাল্টি শ্যুট আউটে ৪-২ গোলে জয়ী হয়ে শেষ চার নিশ্চিত হয়েছিল উরুগুয়ের। ম্যাচটিকে বিশ্বকাপের ইতিহাসে অন্যতম নাটকীয় এক ম্যাচ হিসেবে গণ্য করা হয়।

২০১৪ সালে আবারো আলোচনায় সেই সুয়ারেজ। এবার অবশ্য সম্পূর্ণ ভিন্ন এক ঘটনায় তিনি খলনায়কে পরিনত হয়েছিলেন। ইতালির গিওর্গিও চিয়েলিনিকে কামড়ের দায়ে সব ধরনের ফুটবল থেকে চার মাসের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। এটি তার ক্যারিয়ারে তৃতীয় কামড়ের ঘটনা ছিল। এই ঘটনাটি কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেনি উরুগুয়ের ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা। যদিও খেলোয়াড়দের মধ্যে সুয়ারেজের পক্ষ নিয়ে অনেকেই কথা বলেছিল।

মাঠে সুয়ারেজের কর্মকাণ্ড বা ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও তার প্রতিভা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। যে কারনে আন্তর্জাতিক ও ক্লাব উভয় ক্ষেত্রেই তিনি স্বমহিমায় নিজেকে প্রমাণ করেছেন। বিতর্কের শতভাগ পূর্ণ করলেও ৯৯ ম্যাচে ৩১ বছর বয়সী এই তারকা ফরোয়ার্ডের কাছ থেকে উরুগুয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড পেয়েছে।

এ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ম্যাচে সুয়ারেজের গোলসংখ্যা ৫১টি। এর মধ্যে পাঁচটি এসেছে বিশ্বকাপ থেকে। মিশরের বিপক্ষে এবারের বিশ্বকাপে ১-০ গোলের জয় দিয়ে শুভ সূচনা করেছে উরুগুয়ে। 

একাতেরিনবার্গের ঐ ম্যাচে নিজেকে মেলে ধরতে না পারলেও অপেক্ষাকৃত দূর্বল সৌদি আরবের বিপক্ষে নিজের শততম ম্যাচটা ঠিকই স্মরণীয় করে রাখতে চান সুয়ারেজ।



মন্তব্য