kalerkantho


বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন অবলম্বনে

এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা স্পিনার রশিদ?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ মে, ২০১৮ ১৫:১৪



এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা স্পিনার রশিদ?

ছবি : এএফপি

বিস্ময়কর বোলিং আর অবিশ্বাস্য ধারাবাহিকতার জন্য যদি কোনো ক্রিকেটারকে বেছে নিতে বলা হয়; বেশিরভাগ ক্রিকেটপ্রেমী এই মুহূর্তে বেছে নেবেন আফগান ঘূর্ণি জাদুকর রশিদ খানকে। গত বছর আইপিএলের আগে হায়দ্রাবাদ যখন চার কোটি রুপি দিয়ে প্রায় অচেনা এই তরুণকে কেনে, অনেকেই অবাক হয়ে কপালে চোখ তুলেছিলেন। কিন্তু দুই বছর না যেতেই মাত্র ১৯ বছরের আফগান ক্রিকেটার আইপিএল তো বটেই, বিশ্ব ক্রিকেটের নতুন সুপারস্টার হয়ে উঠছেন।

গত শুক্রবার আইপিএলের প্লে-অফ ম্যাচে হায়দ্রাবাদের পক্ষে তার অসামান্য পারফরমেন্সের পর ভক্তরা ছাড়াও বিশ্বের বড় বড় কিকেটোরদেরও অকুন্ঠ প্রশংসায় ভাসছেন রশিদ খান। ঐ ম্যাচে ব্যাট হাতে তার ১০ বলে ৩৪ রান এবং বল হাতে মাত্র ১৯ রানে ৩ উইকেট নিয়ে কলকাতাকে একাই ধসিয়ে দেন। ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার বলেছেন, টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের ক্রিকেটে রশিদ খান এখন নিঃসন্দেহে সেরা।

শচীন টেন্ডুলকার টুইট করেছেন, 'আমি সবসময়ই মনে করতাম সে একজন ভালো স্পিনার, কিন্তু এখন আমার বলতে দ্বিধা নেই যে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সে বিশ্বের সেরা।'

আরেক কিংবদন্তি লেগ স্পিনার শেন ওয়ার্ন বলেছেন, রশিদ খানের স্পিন বোলিং তাকে বিশেষভাবে উদ্বীপ্ত করে। মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন ভিভিএস লক্ষণ এবং ইরফান পাঠানসহ ভারতের বহু সাবেক ক্রিকেটার। ২০১৭ সালে চার কোটি রুপি দিয়ে প্রায়-অচেনা আফগান এই তরুণকে কিনে ঝুঁকি নিয়েছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। প্রথম মৌসুমেই তিনি তার প্রতিভার ছটা দেখিয়েছিলেন। কিন্তু এবারের আইপিএলে নিঃসন্দেহে সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটারে পরিণত হয়েছেন যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের এই তরুণ।

আফগানিস্তানের যে শহরে তিনি বড় হয়েছেন, গত ২০ তারিখেও সেই জালালাবাদে এক ঘরোয়া ক্রিকেট ম্যাচে সন্ত্রাসী হামলায় আট জন মারা গেছে। এমন এক পরিবেশ থেকে উঠে এসে ক্রিকেট বিশ্বে তার ঝড় তোলাকে অনেকেই রুপকথার সাথে তুলনা করছেন।

হায়দ্রাবাদের ভক্তরা ছাড়াও ভারতের অনেক ক্রিকেট ভক্ত টুইটারসহ সোশাল মিডিয়ায় সরকারের প্রতি আবেদন করছেন রশিদ খানকে যেন ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হয়। তারা বলছেন, কণ্ঠশিল্পী আদনান সামি যদি ভারতের নাগরিকত্ব পায়, রশিদ খান কেন নয়?তাকে নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবিতে টুইটারে ঝড় ওঠার পর ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এবং আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গানি তাতে সাড়া দিয়েছেন।

সুষমা স্বরাজ অনেকটা মজা করে টুইট করেছেন, 'নাগরিকত্ব দেওয়ার দায়িত্ব ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের।'

পরপরই আফগান প্রেসিডন্ট আশরাফ ঘানি টুইট করেন, 'আফগানরা আমাদের নায়ক রশিদ খানকে নিয়ে গর্বিত। তাকে প্রতিভা বিকাশের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য ভারতীয় বন্ধুদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ...কিন্তু আমরা তাকে কোনাভাবেই (ভারতকে) দেব না।'



মন্তব্য