kalerkantho


'সালাহকে ভয়ংকর উন্মাদের মতো ফাউল করেছে রামোস!'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ মে, ২০১৮ ০৯:৫১



'সালাহকে ভয়ংকর উন্মাদের মতো ফাউল করেছে রামোস!'

এমন ফাউল করেও লাল কার্ড দেখতে হয়নি সার্জিও রামোসকে! ছবি : এএফপি

চ্যাম্পিয়নস লিগের জমজমাট ফাইনালে গোটা ফুটবলবিশ্বের নজর ছিল মোহাম্মদ সালাহর ওপর। সবাই অধীর অপেক্ষায় ছিল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে তার মাঠের লড়াই দেখার। শুরু থেকে সবকিছু ঠিকঠাকই চলছিল। আক্রমণ আর প্রতি আক্রমণে জমে উঠেছিল লড়াই। কিন্তু সবকিছু যেন শেষ হয়ে গেল ম্যাচের ৩০তম মিনিটে! সালাহকে এমনভাবে ফেলে দিলেন রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোস, লিভারপুল তারকা কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়লেন। 

শনিবার কিয়েভের ফাইনালে ট্যাকল করার সময় সালাহকে অনেকটা জোরেই মাটিতে আছড়ে ফেলেন রামোস। পড়েই কাতরাতে থাকেন সালাহ। উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে বুঝলেন সম্ভব হবে না খেলা। ফিজিওর সাহায্যে কিছুক্ষণ প্রাথমিক চিকিৎসা চলল। মাঠেও ফিরেছিলেন খানিক পর। কিন্তু পরক্ষণেই আবার ডেকে পাঠান ফিজিওকে। কাঁদতে কাঁদতে এবং সবাইকে কাঁদিয়ে মাঠ ছাড়েন এই মিশরীয় তারকা। আশ্চর্যের বিষয় হলো, এত বড় ফাউল পার পেয়ে গেলেন রামোস। তাকে লাল-হলুদ কোনো কার্ডই দেখতে হয়নি! 

রামোসের এই কাণ্ডের পর ফুটবলবিশ্বে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। ডেইলি মিররের ক্রীড়া সাংবাদিক ডেভিড মাডক তো বলেই দিয়েছেন, রামোস ইচ্ছা করে ঠাণ্ডা মাথায় এই ঘটনা ঘটিয়েছেন। তিনি বলেছেন, 'বিশ্বাস করুন, রামোসের মতো খেলোয়াড়ের কাছ থেকে এমন জঘন্য বিষয় কখনোই আশা করিনি। সে ভয়ঙ্কর, উন্মাদের মতো সালাহকে ফাউল করেছে। খুব সম্ভবত তার বিশ্বকাপে খেলাটাও অনিশ্চিত করে দিয়েছে। বিশ্বাস করুন, তাকে দেখেই বোঝা গেছে; কী করছিল। ঠাণ্ডা মাথায় ইচ্ছে করেই হাত দিয়ে চেপে সালাহর কাঁধ মাটিতে ফেলেছে। লাল কার্ডও এর জন্য কম হয়ে যায়।' 

ম্যাচ শেষে লিভারপুল ম্যানেজার জার্গেন ক্লপ বলেছেন, সালাহর চোট গুরুতর। তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে এক্স-রে করার জন্য। রিপোর্ট আসলে বোঝা যাবে তার ভাগ্যে কী লেখা আছে। আর মাত্র ১৮ দিন পর শুরু হতে যাচ্ছে রাশিয়া বিশ্বকাপ। চোট যদি গুরুতর হয় তবে ফুটবলের মহাযজ্ঞের এই আসরে খেলা হবে না প্রিমিয়ার লিগে ৪৪ গোল করা সালাহর। তার হাত ধরেই ২৮ বছর পর বিশ্বকাপের মূলপর্বে উঠেছে মিশর। সেই সালাহই যদি এখন না খেলেন, ভক্ত-সমর্থকদের জন্য এর চেয়ে বড় দুঃখ আর কী হতে পারে?



মন্তব্য

Rana commented 20 days ago
রামোসের নোংরা আচরণে খেলাটার আকর্ষণ নষ্ট হয়ে গেলো, সালাহ্র ইনজুরিটা রামোসের পরিকল্পনা করা। সালাহর হাত টেনে ধরে টেনে মাটিতে ফেলে তার ওপর তিনি জাম্প করেছেন , রেফারি ছিল পেছন দিকে তাই টের ও পায়নি সেটা। রিপ্লে টা ভালো করে খেয়াল করুন আমার কথার সত্যতা পাবেন। এমনকি সাদিয়া মানের হাত রামোসের পিঠে লাগলে ও সে মুখ ধরে গড়াগড়ি করেছে রেফারি যেন মানেকে কার্ড দেখায়। রামোস লিভারপুলের পরিকল্পনা এলোমেলো করে দিলো , আর লিভারপুলের কিপার জয়টা রিয়ালকে উপহার দিলো।