kalerkantho


রশিদকে জাতীয় দলে চায় ভারত! নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ মে, ২০১৮ ১৭:৩৫



রশিদকে জাতীয় দলে চায় ভারত! নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবি!

ছবি : এএফপি

ধুমকেতুর মতো আবির্ভূত হয়ে আবার হারিয়ে যাওয়া নয়; পুরদস্তুুর একজন তারকা স্পিনারের মতোই ধারাবাহিকভাবে ঘূর্ণি জাদু দেখিয়ে যাচ্ছেন আফগানিস্তানের রশিদ খান। ১৯ বছর বয়সী এই লেগস্পিনার চলতি আইপিএলেও ভয়ংকর হয়ে উঠেছেন। গতকাল নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে ঘূর্ণির পাশাপাশ দেখিয়েছেন ব্যাটিং ধামাকাও। এরপরেই ভারতীয় ক্রিকেটমহলে দাবি উঠেছে, রশিদকে ভারতের নাগরিকত্ব দিয়ে জাতীয় দলে নেওয়া হোক!

গতকাল কোয়ালিফায়ারে সানরাইজার্সের জয়ের নায়ক তরুণ আফগান স্পিনার। তার ব্যাট ও বলের দাপটে কেন উইলিয়ামসনের দল ১৩ রানে হারিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে। এরপর বল হাতেও নাইট ব্যাটিং অর্ডারে ভাঙন ধরান রশিদ। রবিন উথাপ্পা, ক্রিস লিন ও অ্যান্দ্রে রাসেলের উইকেট নেন তিনি। ফিল্ডিংয়েও তিনি ছিলেন সবার সেরা। তার শক্তিশালী থ্রো-তে রান আউট হন নীতীশ রানা। সেই সঙ্গে শেষ ওভারে দুটি ক্যাচ ধরেন তিনি। 

তার এই অলরাউন্ড ফর্মে মুগ্ধ ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা। কেউ কেউ এতটাই রশিদের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ যে, তারা চাইছেন এই আফগান তারকা ভারতীয় দলের হয়ে খেলুক। এ ধরনের অসংখ্য পোস্টে সোশ্যাল মিডিয়া সয়লাব হয়ে গেছে। পরপর দুটি আইপিএলে চোখধাঁধানো পারফরম্যান্স দেখে অসংখ্য ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমী রশিদকে ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রদানের দাবি জানিয়েছেন। তাদের দাবি এতটাই ব্যাপক রূপ নিয়েছে যে, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের নজরে এসেছে!

এক প্রতিক্রিয়ায় সুষমা স্বরাজ টুইটারে লিখেছেন, 'আমি সমস্ত টুইট দেখেছি। নাগরিকত্ব প্রদানের বিষয়টি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ের অধীনে।' পরে অবশ্য ওই টুইট ডিলিট করে দেন তিনি

রশিদের পারফরম্যান্স শুধু ক্রিকেটের মাঠেই সীমাবদ্ধ নেই। সন্ত্রাস-বিধ্বস্ত আফগানিস্তানের দূত হিসেবেই মনে করা হয় তাকে। তাই তাকে নিয়ে ভারতীয়দের এই আবেগ সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আফগান সরকারের কর্মকর্তারাও। ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের রশিদ সম্পর্কে আগ্রহ দেখে আফগান প্রেসিডেন্ট আশরফ ঘানি টুইটারে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ট্যাগ করে বলেন, রশিদ ক্রিকেট বিশ্বের সম্পদ এবং তাকে অন্য কোথাও যেতে দেওয়ার পরিকল্পনা তাদের নেই! 

টুইটারে ঘানি লিখেছেন, 'আমাদের নায়ক রশিদ খান সম্পর্কে আমরা গর্বিত। আমাদের খেলোয়াড়দের দক্ষতা প্রদর্শনের সুযোগ দেওয়ার জন্য আমরা ভারতীয় বন্ধুদের ধন্যবাদ জানাই। আফগানিস্তানের সেরাটা রশিদ সবার সামনে তুলে ধরেছেন। তিনি শুধু আমাদের নয়; গোটা ক্রিকেট বিশ্বেরই সম্পদ। না, আমরা তাকে কোথাও যেতে দিচ্ছি না।'

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, আগামী চার বছর ভারত বা অন্য কোনো দেশের হয়ে খেলার সুযোগ নেই রশিদের সামনে। অনূর্দ্ধ ১৯ বা তার পরবর্তী পর্বে কোনো খেলোয়াড় একটি দেশের প্রতিনিধি হিসেবে আইসিসি স্বীকৃতি ম্যাচ খেললে তার পরবর্তী ৪ বছরের আগে তিনি অন্য দেশের হয়ে খেলতে পারবেন না। আগামী মাসেই ভারতের বিপক্ষে তাদের মাটিতে নিজেদের অভিষেক টেস্ট খেলতে নামছে আফগানিস্তান। 

 


মন্তব্য