kalerkantho


ইংল্যান্ডকে চাপে রাখতে প্রস্তুত পাকিস্তান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মে, ২০১৮ ২১:১৮



ইংল্যান্ডকে চাপে রাখতে প্রস্তুত পাকিস্তান

আগামীকাল লর্ডসে শুরু হওয়া প্রথম টেস্টে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে চাপে রাখতে তার সব কিছুই অর্জন করেছে বলে বিশ্বাস করেন পাকিস্তান কোচ মিকি আর্থার।
সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে টেস্ট সফরে জয় বিহীন থাকার পর নিজ মাঠে অতীব প্রয়োজণীয় জয়ের জন্য মুখিয়ে আছে ইংলিশরা। লংগার ভার্সনে সর্বশেষ রেকর্ড ১৩ ম্যাচে জয়ের মুখ দেখেনি স্বাগতিকরা।
পক্ষান্তরে গত সপ্তাহে মালাহিডে অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ উইকেটে জয়ী হয়ে আত্মবিশ্বাসে ভরপুর হয়ে দুই ম্যাচ সিরিজ খেলতে নামবে সফরকারী পাকিস্তান।
লর্ডসে গতকাল সাংবাদিকদের আর্থার বলেন, ‘আমরা এখানে জিততে আসিনি।’
‘দলে থাকা দক্ষ, তরুণ এবং নির্ভিক ক্রিকেটারদের সকলের জন্যই এটা পরিবর্তনের জায়গা। আমরা সঠিকভাবে খেলতে পারলে এবং সব কিছু আমাদের মত করে হলে অবশ্যই তারা ইংল্যান্ডকে চাপে ফেলবে।’
প্রধান কোচ হিসেবে এড স্মিথ দায়িত্ব নেয়ার পর প্রথম টেস্ট খেরতে নামা ইংল্যান্ডে ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে কিছুটা সন্দেহ রয়েছে। অধিনায়ক জো রুটকে ব্যাটিং অর্ডারের তিন নম্বরে প্রমোশন দেয়া হয়েছে। উইকেটরক্ষক জনি বেয়ারস্টোকে পাঁচ এবং জস বাটলারকে পুনরায় সাত নম্বরে রাখা হয়েছে। এছাড়া জ্যাক লিচের ইনজুরির কারণে ইংল্যান্ড দলের হয়ে াভিষেক হতে পারে সমারসেট স্পিনার ডোমিনিক বেস’র।
আর্থার বলেন, ‘বিদেশে ইংল্যান্ডের চেয়ে নিজ কন্ডিশনে ইংল্যান্ড দল সম্পূর্ণ ভিন্ন। অবশ্যই আমাদেরকে বাটলারের প্রতি দৃষ্টি রাখতে হবে। আক্রমণাত্মক ইংল্যান্ড দলে নতুনত্ব যোগ করেছেন তিনি।’
দুই বছর আগে নিজ মাঠে চার টেস্ট সিরিজ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২-২ ব্যবধানে ড্র করেছিল পাকিস্তান।
এরপর অভিজ্ঞ মিসবাউল হক এবং ইউনিস খান উভয়েই অবসর নেয়ায় আজহার আলী ও আসাদ শফিককে দিয়ে তাদের শূন্য স্থান পুরনের আশা করছে পাকিস্তান।
তবে পাকিস্তান দলে রয়েছেন তরুণ ব্যাটসম্যান ইমাম-উল হকও। চলতি সফরে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ জয়ী ইনিংসসহ এ পর্যন্ত তিন ম্যাচেই হাফ সেঞ্চুরি করেছেন পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচক ইনজামাম উল হকের এ ভাতিজা।
উইকেটে ইনজি থেকে সম্পূর্ণ আলাদা চরিত্রের বাঁ-হাতি ওপেনার ২২ বছর বয়সী ইমাম সম্পর্কে আর্থার বলেন, ‘ইনজি থেকে সে সম্পূর্ণ আলাদা চরিত্রের। নিজের অভিষেক টেস্টে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে চাপের মধ্যেও সে চমৎকার খেলেছে।’
-সময়ের সঙ্গে পরিবর্তন-
আর্থারের বিশ্বাস দুই বছর আগে তিনি যখন দায়িত্ব নিয়েছিলেন তার চেয়ে পাকিস্তান দল এখন অনেক বেশি ফিট ও আক্রমণাত্মক দল।
তিনি বলেন, ‘আমরা এখন অবিশ্বাস্যরকম একটা ফিট ইউনিট। ছেলেরা অবিশ্বাস্যরকম কঠোর পরিশ্রম করেছে, যেমনটা আমরা ২০১৬ সালে ছিলাম না। তবে প্রায় সকলের জন্যই সেটা ছিল শুরু মাত্র।’
সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্বাধীন দলটি সম্পর্কে দক্ষিণ আফ্রিকা অস্ট্রেলিয়ার সাবেক এ কোচ বলেন, ‘বর্তমানে আমরা অনেক বেশি আক্রমণাত্মক মার্কা ক্রিকেট খেলছি। আমরা মনে করেছি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের পরিবর্তন আনা দরকার এবং দলে আরো বোলার রাখা দরকার।’
তবে পাকিস্তান দলের সাফল্যের অনেক কিছুই নির্ভর করছে ২০১০ সালে যুক্তরাজ্য সফরে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধাদেশ কাটিয়ে পুনরায় খেলায় ফিরে টেস্ট এবং ইংল্যান্ডের মাটিতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করা পেসার মোহাম্মদ আমিরের ওপড়। অবশ্য ২০১৭ মৌসুমে ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে এসেক্সেও হয়েও সাফল্য পেয়েছেন তিনি।
এছাড়াও অনেক কিছু নির্ভর করছে ইনজুরিতে থাকা ইয়াসির শাহর বদলি হিসেবে দলে সুযোগ পাওয়া ১৯ বছর বয়সী শাদাব খানের ওপড়।
সেরা একাদশে ইংনর‌্যান্ডকে বেছে নিতে হবে সিম বোলিং অলরাউন্ডার ক্রিস ওকস এবং ইনজুরি গ্রস্ত ফাস্ট বোলার মার্ক উডের মধ্য থেকে এক জনকে। পক্ষান্তরে পাকিস্তান ১২ সদস্যের দল থেকে বাদ দিতে হবে রাহাত আলী অথবা হাসান আলীকে।
মজা করে আর্থার বলেন, ‘একজন আলী খেলবে।’
পক্ষান্তরে পাকিস্তানের হুমকি সম্পর্কে সচেতন ইংল্যান্ড তারকা ব্যাটসম্যান বাটলার। লর্ডসে নিজের শেষ টেস্টে পাকিস্তানের কাছে ৭৫ রানে পরাজিত হওয়া ইংলিশ দলের সদস্য ছিলেন তিনি।
বাটলার বলেন, ‘তারা অভিজ্ঞতাসম্পন্ন কিছু খেলোয়াড়কে হারিয়েছে। তবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে আমরা যা দেখেছি তাতে পাকিস্তান খুবই শক্তিশালী একটি দল।’
টেস্ট ক্রিকেটে তিন অভিজ্ঞ খেলোয়াড় ওপেনার এলিস্টার কুক এবং নতুন বলের দুই পার্টনার স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস এন্ডারসনকে নিয়ে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড।
আর্থার বলেন, ‘সব কিছুই আসে দায়িত্ব ও জবাবদিহিতা থেকে। একটি জুটি দারুণ ছন্দে আছে।’
‘এই মুহূর্তে আমার ছেলেরা মোটেই ভীত নয়। দুই হাতে সুযোগ লুফে নিতে তারা প্রস্তুত।’



মন্তব্য