kalerkantho


গ্রিজম্যানের জোড়া গোলে শিরোপা জিতল আতলেটিকো মাদ্রিদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ মে, ২০১৮ ১৯:০৮



গ্রিজম্যানের জোড়া গোলে শিরোপা জিতল আতলেটিকো মাদ্রিদ

ছবি : এএফপি

ফরাসি স্ট্রাইকার আঁতোয়া গ্রিজম্যানের জোড়া গোলে ইউরোপা লিগোর শিরোপা ঘরে তুলল আতলেটিকো মাদ্রিদ। বুধবার লিওঁতে অনুষ্ঠিত ফাইনালে মর্শেইকে ৩-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা নিশ্চিত করেছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। এ নিয়ে বিগত ৯ বছরের মধ্য তৃতীয়বারের মতো ইউরোপা লিগের ট্রফি জিতে নিল স্পেনের দলটি।

এটি ছিল আতলেটিকোর হয়ে গ্রিজম্যানের প্রথম কোনো বড় শিরোপা। যদিও তিনি এখন দল ছেড়ে যাবার জন্য উঠে-পড়ে লেগেছেন। এতে যদি গ্রিজম্যান সফল হন তাহলে হয়তো তার পরবর্তী ঠিকানা হবে বার্সেলনা। ম্যাচের দুই অর্ধে দুই গোল করেছেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার। ম্যাচের শেষ ভাগে আতলেটিকোর হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন গ্যাবি নামে পরিচিত অধিনায়ক গ্যাব্রিয়েল ফার্নেন্দেজ।

ম্যাচের ২১তম মিনিটে প্রতিপক্ষের ভুল বুঝাবুঝির সুযোগে বল পেয়ে যান আতলেটিকোর অধিনায়ক গ্যাবি। বলটি নিয়ে দ্রুত ডি-বক্সে এগিয়ে দেন সতীর্থ গ্রিজম্যানকে। নিচু শটে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন ফরাসি এই ফরোয়ার্ড (১-০)। দ্বিতীয়ার্ধের চতুর্থ মিনিটে অর্থাৎ ম্যাচের ৪৯তম মিনিটে ফের গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন গ্রিজম্যান।

কোকের পাস ডি-বক্সে পেয়ে কিছুটা এগিয়ে সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারকে কোনো সুযোগ না দিয়ে আগুয়ান গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে জালে বল পাঠান তিনি (২-০)। চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এটি ছিল তার ২৯তম গোল। ৮৯তম মিনিটে কোকের পাস থেকে ডি-বক্সে বল পেয়ে নিখুঁত কোনাকুনি শটে লক্ষ্য ভেদেও মাধ্যমে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে শিরোপা নিশ্চিত করেন আতলেটিকো অধিনায়ক গ্যাবি (৩-০)

ক্যারিয়ারের গোটা সময়টি স্পেনে অতিবাহিত করলেও এর আগে একবার মাত্র স্প্যানিশ সুপার লিগোর শিরোপা লাভ করতে পেরেছেন গ্রিজম্যান। খেলা শেষে তিনি বলেন, '১৪ বছর বয়সে ঘর ছাড়ার পর এটিই আমার প্রথম কোনো বড় শিরোপা। এ জন্য আমাকে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে।'

২০১৪ ও ২০১৬ সালে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে পৌঁছার পরও শিরোপার দেখা পায়নি আতলেটিকো। দুটি ফাইনালেই তাদের হারিয়ে শিরোপা জয় করে নিয়েছে নগর প্রতিপক্ষ রিয়াল মাদ্রিদ। শেষ পর্যন্ত ইউরোপা লিগে এসে সফলতা পেল আতলেটিকো। এর আগে ২০১০ ও ২০১২ সালের ইউরোপা শিরোপা জয় করেছিল ক্লাবটি। কোচ হিসেবে দিয়েগো সিমিওনেকে নিয়োগ করার মাত্র ৬ মাসের মাথায় প্রথম সফলতার মুখ দেখে আতলেটিকো।

টাচ লাইন নিষেধাজ্ঞার কারণে ডাগ-আউটে বসেই ম্যাচটি উপভোগ করতে হয়েছে সিমিওনেকে। তিনি বলেন, 'গ্রিজম্যান বছরের পর বছর যা করেছে তার একটি স্বীকৃতি হচ্ছে এই শিরোপা। আশা করছি তিনি আমাদের সঙ্গে খুশিতেই থাকবেন। তিনি যে দলে থাকবেন সে বিষয়ে আমার কোনো সন্দেহ নেই। আমাদের সঙ্গে ইতোমধ্যে তিনটি ফাইনাল খেলেছেন তিনি। আশা করছি নিয়মিত ফাইনালে খেলার সুযোগ থেকে তিনি দূরে সরে যাবেন না।'



মন্তব্য