kalerkantho


এই স্কোর নিয়ে কী লড়াই করবে 'আতঙ্কিত' বাংলাদেশ?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ মার্চ, ২০১৮ ২১:২০



এই স্কোর নিয়ে কী লড়াই করবে 'আতঙ্কিত' বাংলাদেশ?

ইনিংসের সর্বোচ্চ স্কোরার লিটন দাস। ছবি: এএফপি

শ্রীলঙ্কায় এসে 'আতঙ্ক' কাটিয়ে 'ভয়ডরহীন' ক্রিকেট খেলার আহ্বান জানিয়েছিলেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। কিন্তু আজ তিনিই ব্যর্থ হলেন। ব্যর্থ হলেন সেরা ব্যাটসম্যানরা। তার মানে ঘরের মাঠে টানা তিন সিরিজ হারের 'আতঙ্ক' এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি টাইগাররা। লড়াই যা করার একটু করলেন অনেকদিন পর দলে ফেরা লিটন দাস এবং ফর্মহীনতায় ভূগতে থাকা সাব্বির রহমান। তাদের ব্যাটিংয়েই নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৯ রান তুলল বাংলাদেশ। এই রান নিয়ে ভারতের মত দলের বিপক্ষে লড়াই করা চাট্টিখানি কথা নয়!

কলম্বোর আর. প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে উড়ন্ত সূচনার পর ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। শুরু থেকেই মারকুটে মেজাজে থাকা সৌম্য সরকার ১২ বলে ১টি করে চার-ছক্কায় ১২ বলে ১৪ রান করে উনাদকাটের বলে যুজবেন্দ্র চাহালের তালুবন্দি হন। শার্দুল ঠাকুরের পঞ্চম ওভারের তৃতীয় বলে রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান তামিম। পরের দুই বলেই বাউন্ডারি হাঁকান দেশসেরা ওপেনার। ওভারের শেষ বলে আর রক্ষা পেলেন না তিনি। শর্ট ফাইন লেগে উনাদকাটের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন ১৬ বলে ১৫ রান করে।

এরপর হাত খুলে খেলতে থাকেন মুশফিক-লিটন। ২ চার ১ ছক্কায় বেশ ভালোই জমিয়ে ফেলেছিলেন মুশফিক। তবে দলীয় ৬৬ রানে ভারত রিভিউ নিয়ে তাকে থামায়। বিজয় শংকরের বলটি মুশফিকের (১৮) ব্যাট ছুঁয়ে জমা হয় উইকেটকিপার দিনেশ কার্তিকের গ্লাভসে। বাংলাদেশের চতুর্থ উইকেটের পতন হয় অধিনায়ক মাহমুদ উল্লাহর বিদায়ে। ৮ বলে ১ রান করে বিজয় শংকরের দ্বিতীয় শিকার হন তিনি। লিটন দাসের সঙ্গে ফর্মহীনতায় ভুগতে থাকা সাব্বির রহমান দলের স্কোরকে টেনে নিতে থাকেন। ১৫তম ওভারে দলের স্কোর একশ ছাড়িয়ে যায়।

দলীয় ১০৭ রানে যুজবেন্দ্র চাহালের বলে সুরেশ রায়নার তালুবন্দি হন ৩০ বলে ৩ চারে ৩৪ রান করা লিটন। ১৫ রানে অপরাজিত সাব্বিরের সঙ্গী হন মেহেদী মিরাজ। উনাদকাটের বলে ক্যাচ দেওয়ার আগে ৩ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি। সাব্বির অনেকদিন পর দুই অংকে গেলেন। ২৬ বলে ৩ চার ১ ছক্কায় গুরুত্বপূর্ণ ৩০ রানের ইনিংস খেলে ১৯তম ওভারের পঞ্চম বলে উনাদকাটের শিকার হন। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৯ রান তুলে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মাহমুদ উল্লাহ (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান, নাজমুল ইসলাম, রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদ এবং মুস্তাফিজুর রহমান।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, সুরেশ রায়না, মণীশ পাণ্ডে, রিশভ পান্ত, দিনেশ কার্তিক, ওয়াশিংটন সুন্দর, বিজয় শঙ্কর, শার্দুল ঠাকুর, জয়দেব উনাদকাট, যুজবেন্দ্র চাহাল।



মন্তব্য