kalerkantho


ক্লাসেন ঝড়ে উড়ে গেল ভারত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৫:২১



ক্লাসেন ঝড়ে উড়ে গেল ভারত

দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়ছেন বেহারদিন এবং ডুমিনি। ছবি: এএফপি

প্রায় একতরফা ভাবে ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেওয়ার পর টি-টোয়েন্টি সিরিজে প্রতিরোধের মুখোমুখি হলো বিরাট কোহলির ভারত। প্রথম ম্যাচে বিপুল বিজয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে কোহলিদের হারতে হয়েছে ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে। আর স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার এই জয়ে ব্যাট হাতে অবদান রাখলেন ৩০ বলে ৭ বাউন্ডারি ৩ ওভার বাউন্ডারিতে ৬৯ রান করা হেনরিক ক্লাসেন। সঙ্গী হলেন জেপি ডুমিনি।

ক্লাসেন সব চেয়ে বেশি নির্দয় ছিলেন যুজবেন্দ্র চাহালের ওপর। ৪ ওভারে ৬৪ রান দিয়েছেন এই রিস্ট স্পিনার। ক্লাসেন আউট হওয়ার পরে দায়িত্ব নিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক জে পি ডুমিনি। শেষ পর্যন্ত ১৯ নম্বর ওভারে পর পর দুটি ছক্কা মেরে ৬ উইকেটে ম্যাচ জিতিয়ে দিলেন ডুমিনি। ভারতের ৪ উইকেটে ১৮৮ রানের জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকা ১৮.৪ ওভারে করে ১৮৯৪। ম্যাচ সেরা ক্লাসেন। সিরিজ এখন ১-১ অবস্থায়। সিরিজের নিষ্পত্তি হবে শনিবার, কেপটাউনে।

একটা সময় যখন মনে হচ্ছিল, ভারত হয়তো ১৬৫-১৭০ রানের মধ্যে থেমে যাবে, তখনই ভয়ঙ্কর হয়ে উঠলেন ধোনি। করে গেলেন ২৮ বলে অপরাজিত ৫২। মারলেন চারটে চার, তিনটে ছক্কা। শেষ দুওভারে ধোনি নিলেন ২৮ রান। ইয়র্কার বা শর্ট— কোনও বলেই আটকানো যায়নি তাকে। শেষ ওভারে ডেন প্যাটারসনকে একস্ট্রা কভারের ওপর দিয়ে মারা ছক্কায় দেখা গেছে ধোনির সেই পাশবিক শক্তি। ধোনি এবং মণীশ পাণ্ডের দাপটে দ্বিতীয় টিটোয়েন্টি ম্যাচে ভারত শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে তুলল ৪ উইকেটে ১৮৮। দুজনের জুটিতে উঠল ৯৮ রান।   

ধোনি যেমন শেষ দিকে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিলেন, তেমন মণীশ পাণ্ডে ভারতের স্কোরবোর্ড সচল রাখার দায়িত্ব নিয়েছিলেন মিডল ওভারে। কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রাক্তন এই ব্যাটসম্যান (এ বার আইপিএলে খেলবেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে) প্রথম থেকেই সাবলীল ছিলেন। শর্ট বল পেলেই পুল করতে ছাড়েনি। তার ৪৮ বলে অপরাজিত ৭৯ রানে রয়েছে ৬টি চার, ৩টি ছক্কা। যার বেশির ভাগই এসেছে পুল শটে। এই ম্যাচে রান পাননি রোহিত শর্মা (০), শিখর ধাওয়ান (২৪), কোহলি (১)।


মন্তব্য