kalerkantho



হাথুরুসিংহে ৩ : ০ খালেদ মাহমুদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২১:১১



হাথুরুসিংহে ৩ : ০ খালেদ মাহমুদ

দুজনের মধ্যে অনেক মিল আছে। দুজনেই প্রথমবারের মত নিজ দেশের জাতীয় দলের দায়িত্ব নিয়েছেন। চন্দিকা হাথুরুসিংহে শ্রীলঙ্কার নিয়োগপ্রাপ্ত প্রধান কোচ। আর 'টেকনিক্যাল ডিরেক্টর' এর মোড়কে বাংলাদেশের কোচের দায়িত্ব পালন করছেন খালেদ মাহমুদ সুজন। গত টানা তিনটি সিরিজ দুজনের জন্যই ছিল প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। সেই অ্যাসাইনমেন্টে লেটার মার্ক নিয়ে পাস করে গেলেন হাথুরু। তিনটি সিরিজের শিরোপাই তিনি এনে দিলেন শিষ্যদের জন্য।

শুরুটা হয়েছিল জিম্বাবুয়েকে নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকে। বাংলাদেশের সদ্য সাবেক কোচ হিসবে নতুন শিষ্যদের নিয়ে সফরে এসেছিলেন হাথুরুসিংহে। তাকে নিয়ে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ কম হয়নি। অনেকে তো দেখিয়ে দিতে চেয়েছিলেন হাথুরুকে। ভাবটা এমন ছিল যে, শ্রীলঙ্কার মত গলির ক্রিকেট দলকে হারানো বাঁ-হাতের খেল! ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথম দুই ম্যাচে জিম্বাবুয়ে আর বাংলাদেশের কাছে শ্রীলঙ্কা হেরে যাওয়ার পর এই ধারণা আরও বদ্ধমূল হয়। এরপর ফাইনালের আগে গুরুত্বহীন ম্যাচে ৮২ রানে অল-আউট হওয়ার পর শ্রীলঙ্কা সম্পর্কে ধারণা পাল্টাতে শুরু করে।

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল ৭৯ রানে হেরে শিরোপা হারানোর পর শুরু হয় টেস্ট সিরিজ। চোটর কারণে নেই নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। চট্টগ্রাম টেস্টে মুমিনুল হকের ব্যাটিং ক্যারিশমায় বেশ জাঁকিয়ে বসে বাংলাদেশ। এবার কিছু একটা হবেই। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কিছুই হয়নি। হারতে হারতে মুমিনুল-লিটনের ব্যাটে কোনোমতে ম্যাচ ড্র করে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টেস্টে তো অবস্থা আরও খারাপ। ব্যর্থ মুমিনুল হক। তার দেখাদেখি আউট হওয়ার মিছিলে বাকি সবাই। বাংলাদেশ হারে 'মাত্র' ২১৫ রানে! আরও একটা ট্রফি ঘরে তোলে শ্রীলঙ্কা।

এরপর টি-টোয়েন্টি সিরিজ। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা সাধারণত টেস্ট ফরম্যাটে গিয়ে টি-টোয়েন্টি স্টাইলে খেলে থাকে। তাই খালেদ মাহমুদ টেস্ট খেলিয়ে টি-টোয়েন্টি অনুশীলন করানোর জন্য ঢাকা টেস্টের একাদশে নেয় সাব্বির রহমানকে। ওই টেস্টের দুই ইনিংসে ০ এবং ১ রান করেছিলেন সাব্বির। প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও তিনি যথারীতি ১ রান করে আউট হয়েছেন। দলীয় সর্বোচ্চ স্কোরের (১৯৩) রেকর্ড গড়েও বাংলাদেশ হারে ৬ উইকেটে, ২০ বল আগেই।

আজ রবিবার সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ ছিল। এই ম্যাচটি স্মরণীয় করে রাখার জন্য জয়ের কথাই বলছিলেন সবাই। এসব শুনে হয়ত মুচকি হাসছিলেন হাথুরুসিংহে। ছন্নছাড়া দল নিয়ে অন্তত হাথুরুর সঙ্গে জেতা অসম্ভব। যথারীতি ২১০ রানের জবাবে ১৩৫ রানেই অল-আউট হলো বাংলাদেশ। টানা তিন নম্বর শিরোপা উঁচিয়ে ধরে হাথুরু হয়ত মনে মনে বললেন, 'কী বাংলাদেশকে রেখে গিয়েছিলাম, আর কী দেখতে হচ্ছে!'



মন্তব্য