kalerkantho


জাতীয় দলের জায়গাটা 'নোংরা' হয়ে গেছে; আর থাকতে চান না সুজন!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৮:৫৮



জাতীয় দলের জায়গাটা 'নোংরা' হয়ে গেছে; আর থাকতে চান না সুজন!

ঘরের মাঠে ত্রিদেশীয় সিরিজ আর টেস্ট সিরিজে চরম ব্যর্থতার পর প্রথমবারের মত মুখ খুললেন জাতীয় দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট মাত্র আড়াই দিনে হেরে যাওয়ার পর সোশ্যাল সাইট আর মিডিয়ায় যে তীব্র সমালোচনা চলছে তাতে ভীষণ ক্ষুব্ধ হয়েছেন সাবেক এই ক্রিকেটার। তিনি আর জাতীয় দলের দায়িত্ব নিতে চান না বলেও ঘোষণা দিয়েছেন!

আজ সোমবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমের সামনে নিজের ক্ষোভ উগড়ে দেন সুজন। তিনি বলেন, 'খারাপ ফলের দায় আমি নিতেই পারি। আমাদের পরিকল্পনায় ভুল থাকতে পারে, আরও কিছু থাকতে পারে। কিন্তু আরও অনেক ঘটনা তো আসে মিডিয়ায়। আমার ওপরও অনেক দায় আসে। এটা আমি বোর্ডকে বলব। ব্যক্তিগতভাবে আমি একটুও আগ্রহী নই। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সঙ্গে আমার কাজ করতে ইচ্ছেই করছে না। নোংরা লাগছে জায়গাটা।'

নোংরা বিষয়টা ঠিক কেমন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'বলার কিছু নেই। আপনারাও জানেন, আমরাও জানি। নোংরা বলতে গেলে যে, মিডিয়ায় যেভাবে বলা হয়, আমাদের ক্রিকেটের একটা বড় অন্তরায় মিডিয়াও। আমরা এত ফিশি হয়ে যাচ্ছি আস্তে আস্তে, মিডিয়ার কারণে আমাদের ক্রিকেট আটকে আছে কিনা, সেটাও একটা প্রশ্ন এখন আমার কাছে।'

সমস্ত ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে সুজন বলেন, 'মিডিয়ায় এত বেশি আলোচনা হচ্ছে… আমার এটা মনে হচ্ছে, এত বছর ধরে ক্রিকেটে আছি, এত গসিপিং, এত কিছু ঠিক আছে। এসব হবেই। ভালো-খারাপ আসবেই। সবকিছুই আসবে। কিন্তু কিছু কিছু জিনিস নেতিবাচক হয়ে যাচ্ছে আমাদের ক্রিকেটের জন্য।'

মার্চে অনুষ্ঠিতব্য শ্রীলঙ্কার মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ 'নিদাহাস কাপ' এ তিনি জাতীয় দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সুজন বলেন, 'এটা বোর্ড ঠিক করবে। কারণ বোর্ডই আমাকে এই দায়িত্ব দিয়েছে। কাজ করব না, এই কথা আমি কখনোই বলতে চাই না। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, কেউ কাজ করলেই বাঙালির সবচেয়ে বড় সমস্যা। দল হেরে যাওয়ার পরও যে আমি এই দেশে আছি, এটাই বড় কথা। চন্দিকা যখন প্রথম এসেছিল, আরও বড় বড় কোচ এসেছে, তখনও শুরুতে ফল খারাপ হয়েছে। কিন্তু এ রকম হয়নি।'



মন্তব্য