kalerkantho


'আমাদের যৌন হয়রানির পেছনে অলিম্পিক কমিটিও দায়ী!'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৭:৩৮



মার্কিন জিমন্যাস্টিক্স টিমের ডাক্তার ল্যারি নাসারের একের পর এক কুকর্মের কাহিনী বেরিয়ে আসছে। সিমোনে বাইলসের পর এবার মুখ খুললেন আরেক নারী জিমন্যাস্ট জর্ডিন ওয়েইবার। এর আগে একই অভিযোগ তুলেছেন অ্যালি রাইসম্যান ও সিমোনে বাইলস। নাসারের বিরুদ্ধে কমপক্ষে ১৪২ জন অ্যাথল্যাট ও রোগী যৌন হেনস্থার অভিযোগ করেছেন।

আরও পড়ুন: আইপিএলে মুস্তাফিজের সর্বনিম্ন দাম ১ কোটি

২০১২ সালের অলিম্পিক অংশগ্রহণ করে সোনা জিতেছিলেন ওয়েইবার। নানা রকম চাপে এতদিন মুখ বন্ধ রাখার পর অবশেষে মুখ খুলেছেন তিনি। একাধিক যৌন নির্যাতনের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা চলছে নাসারের বিরুদ্ধে। সেই সংক্রান্ত এক শুনানিতে শুক্রবার হাজির হয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ করেন ওয়েইবার।

আরও পড়ুন: অনুশীলনে কুতিনহোকে স্বাগত জানালেন মেসি-পিকেরা

আদালতে তিনি জানান, 'আমি যখন ১৪ বছরের ছিলাম তখন নাসার প্রথম আমাকে যৌন নির্যাতন করেছিল। এরপর সুযোগ পেলেই জোর করত। বছরের পর বছর ও আমার ওপর এমন নোংরা নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। ক্যারিয়ার এবং সামাজিক কারণে এসব এতদিন বলতে পারিনি। তবে এবার সময়ে হয়েছে সব বলার।'

আরও পড়ুন: 'রিয়ালে রোনালদোর সঙ্গে চমৎকার বন্ধুত্ব হবে নেইমারের'

শুধু এটুকুই নয়, এত নারী অ্যাথলেটদের যৌন হয়রানির পেছনে অলিম্পিক কমিটিকেও দায়ী করেছেন ওয়েইবার। মার্কিন জিমন্যাস্ট বলেছেন, 'এতজন নারী অ্যাথলেটের সঙ্গে যে এই ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য মার্কিন জিমন্যাস্ট কমিটি ও মার্কিন অলিম্পিক কমিটিও দায়ী। তারা কিছুই জানত না এটা বিশ্বাসযোগ্য নয়।'

আরও পড়ুন: আইপিএলে এবার চোখ ধাঁধানো প্রযুক্তি

জর্ডিন ওয়েইবারের সঙ্গে গত শুক্রবার আদালতে নাসারের বিরুদ্ধে সাক্ষী দিতে আসেন আরেক অভিযোগকারী জিমন্যাস্ট অ্যালি রাইসম্যান।



মন্তব্য