kalerkantho


বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন

টেন্ডুলকার পুত্র অর্জুনের সাক্ষাতকার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৯:২৩



টেন্ডুলকার পুত্র অর্জুনের সাক্ষাতকার

অর্জুন টেন্ডুলকার

ভারতের ক্রিকেট কিংবদন্তী শচীন টেন্ডুলকারের ছেলে অর্জুনও ক্রিকেটার হিসেবে নাম করতে শুরু করেছেন।অর্জুন টেন্ডুলকার প্রধানত একজন বাঁ-হাতি ফাস্ট বোলার, তার বাবার মতো ব্যাটসম্যান নন। কিন্তু তার ব্যাটিংও মন্দ নয়।

আরও পড়ুন: বন্ধু ছিলাম, বন্ধু আছি, বন্ধু থাকব

গত সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে অর্জন টেন্ডুলকার ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়া নামের একটি দলের পক্ষ হয়ে একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন এবং ৪টি উইকেট নিয়েছেন। ব্যাট হাতে করেছেন ২৭ বলে ৪৮ রান। এই টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তার ব্যাটিং-বোলিং দুটোই সমালচকদের নজর কেড়েছে।

আরও পড়ুন: 'মহাগুরুত্বপূর্ণ' ম্যাচে রবিবার মুখোমুখি শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুয়ে

বিখ্যাত পিতার যোগ্য উত্তরাধিকারী হওয়া সহজ কাজ নয়। কিন্তু ভারতের কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান শচীন তেন্ডূলকারের ১৮ বছরের ছেলে এই অর্জুনের খেলা দেখে আজকাল অনেকেই বলতে শুরু করেছেন, হয়ত যাকে সহজ বাংলায় বলে 'বাপ কা বেটা' হয়ে ওঠার সম্ভাবনা আছে তার ।

আরও পড়ুন: ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ড্রাফটে কে কোন দল পেলেন

অস্ট্রেলিয়ান এবিসি টিভির নিক রাইনবার্গারকে এক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন অর্জুন। তিনি বলছিলেন, ছোটবেলা থেকেই তিনি খেলা-পাগল, 'অনেক ধরণের খেলা খেলেছি - ফুটবল, সাঁতার, তায়েকান্ডো, আর ক্রিকেট। একজন রানারও ছিলাম আমি। আমার বাবা আমাকে সাহায্য করেছেন, কিন্তু আমি কি খেলবো তা তিনি বলে দেন নি। আমিই ঠিক করেছি। এখন আমি ক্রিকেটেই একটা কেরিয়ার গড়তে চাই, এজন্য অনেক পরিশ্রমও করছি আমি।'

আরও পড়ুন: কোহলিদের পরাজয়েও 'ইতিবাচক' বিষয় আছে: ধোনি

ভারতে একজন ক্রিকেটারের সর্বোচ্চ স্তরে ওঠা খুব কঠিন। আপনাকে শুধু নির্বাচকদের নজর কাড়ার জন্যই কয়েক মৌসুম ধরে ধারাবাহিক ভাবে ভালো খেলে যেতে হবে। ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়া তো বহু দুরের কথা। মাঝখানে এক-দু বছর ভালো না খেললেই ছিটকে যেতে হবে- নিজের অভিজ্ঞতা থেকে এমনটাই বলেছেন অর্জুন।

আরও পড়ুন: শাইনপুকুরে মাশরাফি, মোহামেডানে সাকিব আর কলাবাগানে তামিম

তার ভাষায়, 'আমি বয়স বাড়ার সাথে সাথে লম্বা হয়েছি, শক্তিশালী হয়েছি। তখন থেকেই আমি জোরে বল করতে খুব ভালোবাসতাম। আমি ঠিক করলাম, আমি ফাস্ট বোলারই হবো। কারণ ফাস্ট বোলার ভারতে বেশি নেই।'

অর্জুন টেন্ডুলকার সাক্ষাৎকারে বলছিলেন তার আদর্শ ক্রিকেটারদের নিয়ে, 'বোলার হিসেবে আমার আদর্শ জহির খান, মিচেল জনসন, মিচেল স্টার্ক, আর ওয়াসিম আকরাম। এদের অনেকের সাথেই আমার পরিচিত হবার সৌভাগ্য হয়েছে।'

আরও পড়ুন: তামিমের সঙ্গে প্রতিযোগিতা আরও জমবে: সাকিব

'ওয়াসিম আকরাম আমাকে শিখিয়েছেন, সুইং করতে হলে কিভাবে বলটাকে ধরতে হয়। বলের শাইন কিভাবে রাখতে হয় - সেটাও শিখিয়েছেন তিনি। তিনি শিখিয়েছেন বল চকচকে করার জন্য মুখের লালা ব্যবহার করতে এবং তার পর সেটা শুকিয়ে গেলে ট্রাউজারে ঘষতে হবে। কিন্তু ঘাম ব্যবহার করা চলবে না। অবশ্য মজার ব্যাপার হল, আমার দলের মধ্যে আমারই সবচেয়ে বেশি ঘাম হয়।'

আরও পড়ুন: 'কোহলি নির্ভর' ভারতকে এবার হোয়াইটওয়াশ: রাবাদা

অর্জুন টেন্ডুলকার বলছিলেন, তার বাবা কিভাবে তাকে উপদেশ-পরামর্শ দিয়েছেন, "আমার বাবা আমাকে একটা উপদেশই দিয়েছেন, নির্ভয়ে খেল, নিয়ম মেনে খেল, আর দলের জন্য খেল। আমি কোন মানসিক চাপে থাকি না। বল করার সময় জোরে বল করি, ব্যাট করার সময় শট খেলি, তবে মাথায় রাখি কোন বোলারকে মারতে হবে, কাকে নয়।'

আরও পড়ুন: টর্নেডো ব্যাটিংয়ে এক ওভারে ডুমিনির ৩৭ রান!

নিজের ভবিষ্যত নিয়ে অর্জুন বলেন, 'টেস্ট খেলতে গেলে আমি শুধু একজন ফাস্ট বোলারই হতে চাইব। কিন্তু টি-টোয়েন্টি এমন খেলা যাতে আপনি একটা ভালো ইয়র্কার বলেও মার খাবেন। তবে টি-টোয়েন্টিতে ব্যাটিং করা আমি পছন্দ করি, কারণ সেখানে ইচ্ছেমত পিটিয়ে খেলা যায়।'



মন্তব্য