kalerkantho


ইতালিয়ান কাপের সেমিফাইনালে জুভেন্তাস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৪:০৪



ইতালিয়ান কাপের সেমিফাইনালে জুভেন্তাস

ডগলাস কস্তা ও মারিও মানজুকিচের দুই অর্ধের দুই গোলে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী তোরিনোকে ২-০ গোলে হারিয়ে ইতালিয়ান কাপের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্তাস। ইতালিয়ান কাপের বিজয়ী দল ইউরোপা লিগের গ্রুপ পর্বে সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে। গতকাল ম্যাচ শেষে কোচ মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি বলেছেন, টানা চার বছর সেমিফাইনালে খেলা জুভেন্তাস সঠিক পথেই আছে। 

এর আগে গত মঙ্গলবার সিরি-আ টেবিলের শীর্ষে থাকা নাপোলিকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষ চার নিশ্চিত করেছে আটলান্টা। সেমিফাইনালে এখন জুভেন্তাসের মুখোমুখি হতে হচ্ছে দলটি। অপর সেমিফাইনালে ২০১৭ সালের ফাইনালিস্ট ল্যাজিওর মুখোমুখি হবে এসি মিলান। আগামী ৩১ জানুয়ারি ও ২৮ ফেব্রুয়ারি সেমিফাইনালের দুটি লেগ অনুষ্ঠিত হবে।

গত সেপ্টেম্বরে আগের ম্যাচে তোরিনোকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল জুভেন্তাস। কিন্তু কাল কিছুটা হলেও চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেছে। ১৫ মিনিটে কস্তার গোলের পরে অবশ্য সেনেগালের ফরোয়ার্ড এমবায়ে নিয়ানগে সমতা ফেরাতে ব্যর্থ হন। ৫৯ মিনিটে কস্তার ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ নষ্ট করেন। 

পাওলো দিবালাও কাল দারুণ ফর্মে ছিলেন। সব মিলিয়ে ১২ বারের চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে তোরিনোকে অনেকটা অসহায় মনে হয়েছে। অফসাইড ট্র্যাপ কাটিয়ে মানজুকিটের গোলটি অবশ্য শেষ পর্যন্ত জুভেন্তাসের জয় নিশ্চিত করে। যদিও গোলটি নিয়ে তোরিনোর কোচ সিনিসা মিহাজলোভিচ কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন। দলটির সহকার ম্যানেজার আটিলো লোমবারডো বলেছেন এই গোলটি ম্যাচ শেষ করে দিয়েছে।

মানজুকিচের গোলটি ভিডিও এসিসটেন্ট রেফারির (ভিএআর) সহয়তায় জুভেন্তাসকে দেওয়া হয়। এ সম্পর্কে আলেগ্রি বলেছেন, আমি ঘটনাটি ভালো মত দেখিনি, সে কারণেই কোনো মন্তব্য করতে পারব না। আমি কখনই ভিএআর নিয়ে কোনো মন্তব্য করিনি। শুধু এটুকু বলতে পারি আরো অন্তত দুটি গোল আমাদের করা উচিত ছিল।



মন্তব্য