kalerkantho


আল জাজিরাকে হতাশ করে ক্লাব বিশ্বকাপ ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৩:২৭



আল জাজিরাকে হতাশ করে ক্লাব বিশ্বকাপ ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ

ছবি: এএফপি

ক্লাব ইতিহাসে সম্ভবত সবচেয়ে বড় জয়ের স্বপ্ন থেকে শেষ পর্যন্ত আশাহত হয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের চ্যাম্পিয়ন ক্লাব আল জাজিরাকে। বুধবার ক্লাব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ফেবারিট রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে এক গোলে এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে পরাজিত হতে বাধ্য হয়েছে মধ্য প্রাচ্যের ক্লাবটি। বদলি বেঞ্চ থেকে উঠে এসে রিয়ালের জয় নিশ্চিত করেন ওয়েলসম্যান গ্যারেথ বেল। 

পুরো ম্যাচে রিয়ালের আধিপত্য থাকলেও প্রথমার্ধে রোমারিনহোর গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। যদিও উভয় দলের পক্ষেই একটি করে গোল ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারির সহায়তায় বাতিল করা হয়েছে। তবে দ্বিতীয়ার্ধের ১০ মিনিটের মধ্যে মাদ্রিদকে সমতায় ফেরান ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ৮১ মিনিটে রিয়ালের পক্ষে জয়সূচক গোলটি করেন বেল।

ম্যাচ শেষে মাদ্রিদ টেলিভিশনকে বেল বলেছেন, 'এই ধরনের ম্যাচে গোল পাওয়াটা অসাধারণ বিষয়। বিশেষ করে বদলি বেঞ্চ থেকে উঠে আসলে দায়িত্বটা একটু বেশি থাকে। যদিও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে দল জয়ী হয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে।'

শনিবার ফাইনালে ব্রাজিলিয়ান দল গ্রেমিওর মোকাবেলা করবে জিনেদিন জিদানের দল। ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা ধরে রাখতে পারলে এটা হবে চলতি বছর রিয়ালের পঞ্চম শিরোপা।

দীর্ঘদিনের পেশির সমস্যার কারনে সেপ্টেম্বরের পরে বেল এই নিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন। করিম বেনজেমার পরিবর্তে মাঠে নেমেই তিনি গোল পান। বেল বলেন, আমাকে ধৈর্য্য ধরতে হবে। আমার কিছু সমস্যা রয়েছে যা কাটিয়ে উঠতে কিছুটা সময় লাগবে। নিজের শরীরের প্রতি মনোযোগী হতে হবে।

স্বাগতিক দল হিসেবে এই টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ পেয়েছিল আল জাজিরা। শক্তিশালী রিয়ালের বিপক্ষে অসাধারণ প্রথমার্ধ কাটানোর পরে দ্বিতীয়ার্ধে আর নিজেদের ধরে রাখতে পারেনি। শনিবার লা লিগায় সেভিয়ার বিপক্ষে প্রথমার্ধের পাঁচ গোলে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল রিয়াল। কালকের ম্যাচের শুরু থেকে তেমন ইঙ্গিত পাওয়া গেলেও স্বাগতিক গোলকিপার আলি খাসেইফের অসাধারণ নৈপুণ্যে গোলের দেখা পায়নি। যে কারনে একে একে রোনালদো, লুকা মোদ্রিচ, বেনজেমাদের হতাশ হতে হয়েছে।

তবে কাসেমিরোর হেড ডিফ্লেকটেড হয়ে খাসেইফকে পরাস্ত করলেও ভিএআরের সহায়তা নিয়ে ৪ মিনিট পর ব্রাজিলিয়ান রেফারি সান্দ্রো রিচ্চি ঘোষণা দেন, বেনজেমার অবস্থান অফসাইডে ছিল। যদিও বেনজেমা বারবার জানিয়েছেন তিনি এসময় খেলাকে কোন ধরনের প্রভাবিত করেননি। ভিএআর প্রযুুক্তির ব্যবহার সম্পর্কে বেল বলেছেন, সত্যি কথা বলতে কি আমি এটা মোটেই পছন্দ করিনা। অবশ্যই সকলে চাইবে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে। আমার কাছে মনে হয় এটা ছাড়াই ফুটবলের আবহটা সুন্দর ছিল।

সব মিলিয়ে প্রথমার্ধে মাদ্রিদ আল জাজিরার পোস্টে ১৮টি শট নিলেও গোলের দেখা পায়নি। কিন্তু উল্টো কাউন্টার অ্যাটাক থেকে ৪১ মিনিটে রিয়াল ডিফেন্সকে পরাস্ত করে রোমারিনহো গোল করে বসলে এগিয়ে যায় আল জাজিরা। দ্বিতীয়ার্ধের দুই মিনিটের মধ্যে এমবার্ক বোসুফা গোল করলেও ভিএআর প্রযুক্তির কল্যাণে সে যাত্রায় রক্ষা পায় মাদ্রিদ। আট মিনিট পরে মোদ্রিচের পাস থেকে রোনালদো ইনজুরি আক্রান্ত খাসেইফের স্থানে খেলতে নামা খালেদ আল সেনানিকে পরাস্ত করলে সমতায় ফেরে রিয়াল। ৮১ মিনিটে লুকাস ভাসকুয়েজের কাটব্যাক থেকে বেল রিয়াল শিবিরে স্বস্তি ফেরান। একইসাথে হতাশ হতে হয় স্বাগতিক আল জাজিরাকে।



মন্তব্য