kalerkantho


বদলি বেঞ্চে মেসি! গোলশূন্য ড্রয়ে শেষ ষোলোতে বার্সা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ নভেম্বর, ২০১৭ ১৩:৩৩



বদলি বেঞ্চে মেসি! গোলশূন্য ড্রয়ে শেষ ষোলোতে বার্সা

মুখভঙ্গি দেখে বোঝা যাচ্ছে মেসি নিজেও অবাক হয়েছিলেন। ছবি: এএফপি

লিওনেল মেসিকে বদলি বেঞ্চে বসিয়ে জুভেন্তাসের সাথে তুরিনের মাঠে গোলশূন্য ড্রয়ের মাধ্যমে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ১৬ নিশ্চিত করেছে বার্সেলোনা। নক আউট পর্বে যেতে আলিয়াঁজ স্টেডিয়ামে গতবারের রানার্স-আপ জুভেন্তাসের বিপক্ষে ১ পয়েন্টই যথেষ্ট ছিল।

৫ ম্যাচে তিন জয় ও দুই ড্র-সহ ১১ পয়েন্ট নিয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই গ্রুপ 'ডি'র শীর্ষ দল হিসেবে শেষ ১৬তে উঠেছে কাতালান জায়ান্টরা।

অথচ ম্যাচের আগে বার্সা সমর্থকদের জন্য দুঃসংবাদ বয়ে আনে মেসির বদলি বেঞ্চে থাকার সংবাদটি। আর্নেস্তো ভালভের্দের বিবেচনায় বুধবার রাতে মূল একাদশে মেসির থেকে এগিয়ে ছিলেন পলিনহো। এর আগে অবশ্য বার্সা কর্মকর্তা গুইলারমো আমোর জানিয়েছিলেন সপ্তাহের শেষে লা লিগা টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে ম্যাচকে সামনে রেখেই মেসিকে বিশ্রামে রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

মেসির অনুপস্থিতিতে তুরিনের মাঠে বার্সেলোনার ছন্দে ফিরতে অবশ্য কোনো বেগ পেতে হয়নি। গোলকিপার জিয়ানলুইজি বুফনকেও পুরো ম্যাচে তেমন কঠিন কোনো পরীক্ষার মুখে পড়তে হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধে মেসি বেঞ্চ থেকে উঠে আসলে ডেডলবক ভাঙার চেষ্টা করেন। ইনজুরি আক্রান্ত চিয়েলিনির অনুপস্থিতিতে যদিও সিরি-আ চ্যাম্পিয়নদের রক্ষণভাগ মেসি কিংবা বার্সেলোনাকে কোনো সুযোগই দেয়নি।

স্পোর্টিং সিপির থেকে এক পয়েন্ট এগিয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ইতালিয়ান জায়ান্টরা।

নক-আউট পর্ব নিশ্চিত হওয়ায় বার্সেলোনার সামনে এখন একটাই লক্ষ্য, ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে আগামী রবিবারের ম্যাচটি জয়ের মাধ্যমে লা লিগা টেবিলের শীর্ষস্থানটি ধরে রাখা।

ম্যাচ শুরুর দুই মিনিটের মধ্যেই ডগলাস কস্তার শট মার্ক-আন্দ্রে টার স্টেগান রুখে দেন। কিন্তু প্রথমার্ধের প্রায় পুরোটা সময়ই বলের নিয়ন্ত্রণ ছিল বার্সেলোনার কাছে। মধ্যমাঠে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, ইভান রাকিটিচ, সার্জিও বাসকোয়েট ও পলিনহোরা দুর্দান্ত দক্ষতায় ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন। ৩০ মিনিটে রাকটিচের ফ্রি-কিক ডানদিকের পোস্টে লেগে ফেরত আসলে ফিরতি বলে পলিনহো কিছু করতে পারেননি।

কিছুক্ষণ পরই পলিনহোকে চ্যালেঞ্জ করার অপরাধে মিরালেম জানিকের বিপরীতে বার্সেলোনার একটি পেনাল্টির আবেদন নাকচ করে দেন রেফারি। প্রথম ৪৫ মিনিটে পাওলো দিবালা নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। কিন্তু বিরতির ঠিক আগে জুভেন্তাসের হয়ে এগিয়ে যাবার দারুণ একটি সুযোগ তিনি হাতছাড়া করেন।


মন্তব্য