kalerkantho


অনভিজ্ঞ হোসেন আলীকেই টার্গেট করেছিলেন আরিফুল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ নভেম্বর, ২০১৭ ২০:২৪



অনভিজ্ঞ হোসেন আলীকেই টার্গেট করেছিলেন আরিফুল

দুর্দান্ত সব শট খেলার জন্য ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ পরিচিত মুখ আরিফুল ইসলাম। কিন্তু তার একটা বড় সমস্যা আছে।

সেটা হলো ধারাবাহিকতার অভাব। এক-দুইটা ম্যাচ ভালো খেলে কোথায় যেন হারিয়ে যান। এবার বিপিএলের আগে জাতীয় লিগের সবশেষ ম্যাচে অপরাজিত সেঞ্চুরি করেছেন। আর চলতি বিপিএলের পঞ্চম আসরে নিয়মিতই হাসছে তার ব্যাট। আজ মঙ্গলবার দিনের প্রথম খেলায় অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলে খুলনার জয়ের নায়ক এই আরিফুল। ম্যাচ শেষে জানালেন তার বিধ্বংসী ইনিংসের নেপথ্যের কথা।

ম্যাচের শেষ ৩ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৩৬। উইকেট ছিল ২টি। রাজশাহী কিংস যখন বিজয় উদযাপনের প্রস্তুতি নিচ্ছে তখন আরিফুল ভাবছিলেন ম্যাচটা কীভাবে বের করে আনা যায় সেটা নিয়ে।

সুযোগও পেয়ে গেলেন। ১৮তম ওভারে বোলিংয়ে আসলেন পেসার হোসেন আলী। অনভিজ্ঞ এই পেসারকেই নিজের টার্গেট বানালেন আরিফুল। এক ওভারে ১৮ রান নিয়ে বের করে আনলেন ম্যাচ!

সংবাদ সম্মেলনে সরল স্বীকারোক্তি দিয়ে আরিফুল বললেন, 'আমার বিশ্বাস ছিল যে, আমি শেষ পর্যন্ত টানতে পারলে আমরা জিতব। আমার আত্মবিশ্বাস ছিল।  হোসেন আলির ওভারটিই টার্গেট করেছিলাম, কারণ এরপর বিদেশি বোলাররা আসবে। হোসেন চেষ্টা করছিল ব্লকে বল করার। আমার লক্ষ্য ছিল মারব। হয়ত বড় শট খেলব, নয়ত দুই নেব। এটায় সফল হয়ে গেছি। '

আরিফুলের এই পরিকল্পনা যে শতভাগ সফল হয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। প্রায় অবিশ্বাস্যভাবে ২ উইকেটে ম্যাচ জিতে নিয়েছে মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদের দল। আরিফুলের নামের পাশে ৪টি চার ও ২ ছক্কায় ১৯ বলে অপরাজিত ৪৩! এই ইনিংস খেলে ম্যাচসেরার পুরস্কার না পাওয়ার কোনো কারণ ছিল না।  

আরিফুলের এই ধারাবাহিকতার পেছনে নাকি সবচেয়ে বড় অবদান খুলনা কোচ মাহেলা জয়াবর্ধনের। এই লঙ্কান কিংবদন্তি আরিফুলের ব্যাটিংয়ের খুঁত ধরতে পেরেছেন এবং তা শুধরে দিয়েছেন। আরিফুল বললেন, 'আগে আমার ব্যালান্সে সমস্যা ছিল হয়ত। এবার মাহেলা আমার ব্যালান্স নিয়ে কাজ করেছেন। আমার 'বডি ওয়েট' পেছনে চলে যেত বল মারার সময়। এর সেটি নিয়ে কাজ করেছেন মাহেলা। এতেই অনেক উপকার হয়েছে। '


মন্তব্য