kalerkantho


উত্তেজনার পারদ চড়িয়ে ড্র হলো কলকাতা টেস্ট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ নভেম্বর, ২০১৭ ২০:০৮



উত্তেজনার পারদ চড়িয়ে ড্র হলো কলকাতা টেস্ট

নিষ্প্রাণ ড্র শেষে মাঠ ছাড়ছেন দুই দলের ক্রিকেটাররা। ছবি: এএফপি

প্রথম চারদিন না থাকলেও কলকাতা টেস্টের শেষদিন ছিল উত্তেজনায় ঠাসা। বিশেষভাবে আজকের শেষ সেশনে।

ভারতের ছুড়ে দেয়া ২৩১ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ৭৫ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ প্রায় হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছিল শ্রীলঙ্কার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আলোক স্বল্পতায় দিনের খেলা প্রায় ১৩ ওভার বাকী থাকলে ম্যাচটি ড্র ঘোষণা করে অন-ফিল্ড আম্পায়াররা।  

দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলির অপরাজিত ১০৪ রানের সুবাদে ৮ উইকেটে ৩৫২ রান তুলেছিল টিম ইন্ডিয়া। প্রথম ইনিংসে ভারত ১৭২ ও শ্রীলঙ্কা ২৯৪ রান করে।

প্রথম ইনিংসে ১২২ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিন শেষে ১ উইকেটে ১৭১ রান করেছিল ভারত। ওপেনার শিখর ধাওয়ান ৯৪ রানে ফিরলেও লোকেশ রাহুল ৭৩ ও চেতেশ্বর পূজারা ২ রানে অপরাজিত ছিলেন। পঞ্চম দিন ওই স্কোরে শুরু করে নিজের ইনিংস খুব বড় করতে পারেননি রাহুল ও পূজারা। রাহুল ৭৯ ও পূজারা ২২ রানে ফিরেন।

এরপর ভারতের হাল ধরেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

এক প্রান্তে আগলে ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট করেছেন তিনি। তাকে ভালোভাবে সঙ্গ দিতে পারেননি দলের পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা। ৫ ব্যাটসম্যান দুই অংকে পা না দিয়েই প্যাভিলিয়নে ফিরেন। একমাত্র দশ নম্বরে নামা পেসার মোহাম্মদ সামি অপরাজিত ১২ রান করেন।

তবে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতকে বড় সংগ্রহ এনে দিয়েছেন কোহলি। টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৮তম সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়েছেন তিনি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এটি তার ৫০তম সেঞ্চুরি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৩৪৮তম ইনিংসে ৫০ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন কোহলি। দ্রুত সেঞ্চুরির হাফ-সেঞ্চুরিতে কোহলির সমান দক্ষিণ আফ্রিকার হাশিম আমলা। সেঞ্চুরির হাফ-সেঞ্চুরির ইনিংসে শেষ পর্যন্ত ১২টি চার ও ২টি ছক্কায় ১১৯ বলে অপরাজিত ১০৪ রান করেন কোহলি। শ্রীলঙ্কার লাকমল ও শানাকা ৩টি করে উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ২৩১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ২ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে ফেলে শ্রীলঙ্কা। এরপর ২২ রানে চতুর্থ উইকেট হারায় তারা। তাতে ম্যাচ জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকে ভারত। এমন অবস্থায় লড়াই করার ইঙ্গিত দেন সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ, অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমাল ও উইকেটরক্ষক নিরোশান ডিকবেলা। কিন্তু তিনজনই বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হন। ম্যাথুজ ১২, চান্ডিমাল ২০ ও ডিকবেলা ২৭ রান করে ফিরেন।

৭৫ রানে সপ্তম উইকেট হারানোর কিছুক্ষণ পরই আলো স্বল্পতায় বন্ধ হয়ে যায় খেলা। এরপর ম্যাচটি ড্র ঘোষণা করেন অনফিল্ড আম্পায়াররা। ভারতের ভুবেনশ্বর কুমার ৪টি, সামি ২টি ও উমেশ যাদব ১টি উইকেট নেন। আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে নাগপুরে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।


মন্তব্য