kalerkantho


বুড়ো হেরাথ যা দেখালেন বাংলাদেশে তার বড় অভাব

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ১৬:৩৪



বুড়ো হেরাথ যা দেখালেন বাংলাদেশে তার বড় অভাব

ছবি: এএফপি

স্পিন নির্ভর উপমহাদেশে হঠাৎ করেই পেস সহায়ক উইকেট তৈরী করল ভারত। কলকাতা টেস্টের প্রথম ইনিংসে এই পরিকল্পনা কোহলিদের জন্য বুমেরাংই হলো।

তবে শ্রীলঙ্কার ইনিংসে নজর কাড়লেন রঙ্গনা হেরাথ। স্পিনার হিসেবে ব্যাট হাতে নামলেন ৯ নম্বরে। খেললেন দলীয় সর্বোচ্চ ইনিংস। বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যান ৯-১০ নম্বরে নেমে ৬৭ রানের ইনিংস খেলবেন- এটা কল্পনাতেও আসে না। যদি পারতেন তাহলে কতই না ভালো হত!

কলকাতা টেস্টের চতুর্থ দিনে আগুনের গোলা ছুড়ছেন মোহাম্মদ শামি আর ভুবনেশ্বর কুমার। সেই ভয়ানক  পেস অ্যাটাকের সামনে ১০৫ বলের এম অবিশ্বাস্য লড়াই করবেন হেরাথ, কোহলিরা কল্পনাও করতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত ৯ বাউন্ডারিতে ৬৭ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে দলকে এনে দিলেন ১২২ রানের লিড। বুঝিয়ে দিলেন শুধু বল হাতেই নয়, দলের জন্য এই ৩৯ বছর বয়সে অনেক কিছুই করতে পারেন তিনি।

এটাই হেরাথের ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ নয়।

২০১০ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারতের বিপক্ষে গল টেস্টে অপরাজিত ৮০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। বাংলাদেশে এমনটা একসময় ছিল। মোহাম্মদ রফিক ৯ নম্বরে নেমে সেঞ্চুরি করেছিলেন। ২০০৪ সালে সেন্ট লুসিয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৫২ বলে ১১১ রানের ওই ইনিংসটি বাংলাদেশের ক্রিকেটে ৯ নম্বর পজিশনে সর্বোচ্চ।

এরপর মাশরাফির ৬৩, তাপস বৈশ্যর অপরাজিত ৫২, চার নম্বরে আবারও মাশরাফির ৪৮ এবং পঞ্চম স্থানে ৪৭ রান নিয়ে আছেন সেই রফিক। মোহাম্মদ রফিক তো অনেক আগেই ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। মাশরাফিও অনেকদিন হল টেস্ট খেলেন না। এ যুগের ক্রিকেটারদের মধ্যে নিউজিল্যন্ডের বিপক্ষে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ৩৩ রান করা তাসকিন আছেন ১০ নম্বরে।

একটা আফসোস তো হয়ই, ভারত-অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের মত যদি বাংলাদেশের টেল এন্ডাররা কিছু রান করতে পারতেন! একজন মোহাম্মদ রফিক কিংবা একজন মাশরাফিকে এখন আর টেস্ট ক্রিকেটে পাওয়া যায় না।

 


মন্তব্য