kalerkantho


বিজয়ের তাণ্ডবেও উজ্জ্বল জায়েদের বোলিং

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ নভেম্বর, ২০১৭ ২০:৪৫



বিজয়ের তাণ্ডবেও উজ্জ্বল জায়েদের বোলিং

চলতি বিপিএলে প্রথমবারের মত জ্বলে উঠলেন চিটাগং ভাইকিংসের ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়। তার বিধ্বংসী অর্ধশতাধিক রানের ইনিংসে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৬০ রান তুলেছে চিটাগং।

প্রতিপক্ষ শিবিরে বল হাতে ঝড় তুললেন তরুণ পেসার আবু জায়েদ রাহী। আসরের শুরু থেকেই দুর্দান্ত ছন্দে আছেন তিনি। খুলনা টাইটানসের এই তরুণ পেসার এনামুলকে তখন না থামালে আরও বড় স্কোর গড়ত চিটাগং। তাই দিনের দ্বিতীয় ম্যাচের প্রথম ইনিংসে নজর কাড়লেন দুজনেই।

পুরো ইনিংসজুড়েই চলেছে খুলনার ফিল্ডারদের ক্যাচ মিসের মহড়া। টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই আবু জায়েদের বলে ক্যাচ দিয়ে বেঁচে যান চিটাগং ওপেনার লুক রনচি। অনেক দূর থেকে দৌঁড়ে এসে কঠিন ক্যাচটি তালুবন্দি করতে পারেননি রুশো। তবে দ্বিতীয়বার আর রেহাই পেলেন না। জায়েদের ওভারের শেষ বলে রনচির (৩) ক্যাচ নিলেন অধিনায়ক মাহমুদ উল্লাহ।

তবে সৌম্য-বিজয় জুটিতে এই বিপদে দ্রুতই কাটিয়ে উঠে চিটাগং।

দ্বিতীয় উইকেটে সৌম্য-বিজয় মিলে ৯৫ রানের জুটি গড়েন। ৩৪ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ৩২ রান করে মাহমুদ উল্লাহর শিকার হন সৌম্য। তবে তার আগেই হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন এনামুল হক বিজয়। তার ৪৭ বলে ৫ চার ৩ ছক্কায় ৬২ রানের বিধ্বংসী ইনিংসটি থামে আবু জায়েদের বলে উইকেটকিপার ধীমান ঘোষের গ্লাভসবন্দী হয়ে।

আবু জায়েদের তৃতীয় শিকার হয়ে ০ রানে আউট হয়ে যান সিকান্দার রাজা। এরপর নাজিবুল্লাহ জার্দান (২৪) আর ভ্যান জাইলের (২৩) জুটিতে শেষ পর্যন্ত ১৬০ পর্যন্ত যায় চিটাগং। ৪ ওভারে ২৬ রানে ৩ উইকেট নেন জায়েদ।  ভাইকিংসদের নেতৃত্বে ছিলেন আজ লুক রনচি। একাদশে ছিলেন না নিয়মিত অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক।  


মন্তব্য