kalerkantho


টেন্ডুলকারের ১০ টাকার চাইনিজ খাওয়ার শোক!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ অক্টোবর, ২০১৭ ১৯:০২



টেন্ডুলকারের ১০ টাকার চাইনিজ খাওয়ার শোক!

প্রতীকী ছবি

ক্রিকেট লিজেন্ড শচীন টেন্ডুলকারের আরেকটি পরিচয় আছে, তিনি কিন্তু বেশ ভোজনরসিক। যখন ক্রিকেট খেলতে তখন অনিচ্ছায় খাওয়া দাওয়া নিয়ন্ত্রণে রাখতে হতো।

কিন্তু এখন তো আর বাধ্যবাধকতা নেই। যেমনটা ছিল না তার স্কুলজীবনে। খাবারের প্রতি শচীনের প্রেম বারবার দেখা গেছে। কিন্তু এই শচীন নাকি এখনও হাত কামড়ান প্রথম বার খাওয়া চাইনিজের কথা ভেবে!

মাত্র ৯ বছর বয়সে প্রথম চাইনিজ চেখে দেখেছিলেন ভারতের ক্রিকেট ঈশ্বর। তবে চাইনিজ খাওয়ার সেই খারাপ অভিজ্ঞতা এখনও ভুলতে পারেননি শচীন টেন্ডুলকার। ১৯৮০ সালের কথা। ভারতের বানিজ্য নগরী মুম্বাইয়ে তখন সদ্য চাইনিজ খাবারের আগমন ঘটেছে। ধীরে ধীরে তা পরিচিতও হয়ে উঠছে খাদ্য রসিকদের মাঝে। এমন সময় শচীন ও তার বন্ধুরা প্ল্যান করেন এই আজব খাবারটি কেমন তা একটু চেখে দেখতে হবে।

নিজের আত্মজীবনী 'চেজ ইওর ড্রিম' এ নিজের ছোটবেলার সেই গল্প প্রকাশ করেছেন শচীন। তিনি লিখেছেন, 'আমরা প্রত্যকে ১০ টাকা করে দিয়ে এক রেস্তোঁরায় খেতে যাই। সেই সময় ১০ টাকাই আমার কাছে অনেক কিছু ছিল। নতুন খাবার টেস্ট করার জন্য ভীষণভাবে অপেক্ষায় ছিলাম আমি। কিন্তু প্রথম অভিজ্ঞতা যে একেবারেই ভাল ছিল না!'

শচীন লিখেছেন, 'স্টার্টারে আমার চিকেন এবং সুইট কর্ন স্যুপ অর্ডার করি। অনেকে মিলে একটা বড় টেবিলে বসেছিলাম আমরা। ফলে সেই স্যুপ আমার কাছে আসার আগে প্রায় পুরোটাই শেষ হয়ে গিয়েছিল। গ্রুপে যারা বড় ছিল তারাই অধিকাংশটা শেষ করে দিয়েছিল। '

টেন্ডুলকার তার দুঃখের গল্পে আরও লিখেছেন, 'একই ঘটনা ঘটেছিল যখন আমরা ফ্রাইড রাইস এবং নুডলস অর্ডার করেছিলাম। খুব বেশি হলে আমি প্রত্যকটি থেকে ২ চামচ করে পেয়েছিলাম। আমাদের গ্রুপের বড়দের জন্য সেই সন্ধ্যাটা ভালোই কেটেছিল, কিন্তু আমি প্রচণ্ড ক্ষুধা নিয়েই সেদিন বাড়ি ফিরেছিলাম। '


মন্তব্য