kalerkantho


ওয়ানডে অভিষেকে সেঞ্চুরির যত রেকর্ড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ১৬:২৩



ওয়ানডে অভিষেকে সেঞ্চুরির যত রেকর্ড

ছবি: ইন্টারনেট

অভিষেক ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানো একজন তরুণ ব্যাটসম্যানের জন্য স্বপ্নের মত। প্রথম ম্যাচেই দলে জায়গা পোক্ত করা যায়; নামডাক হয়ে যায় এবং বাড়ে আত্মবিশ্বাস।

একই সাথে থাকে সেঞ্চুরি মিসের আক্ষেপ। যেমনটা বাংলাদেশের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে অল্পের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেছিলেন। তবে পরের ম্যাচেই সেঞ্চুরি হাঁকান তিনি। এখানে অবশ্য টেস্টের কথা নয়; অভিষেক ম্যাচে সেঞ্চুরি করা ওয়ানডে ক্রিকেটারদের দিকে নজর দেওয়া যাক।

পাকিস্তানের হয়ে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে একদিনের আন্তর্জাতিক অভিষেক ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন তরুণ ওপেনার ইমাম-উল-হক। পাকিস্তানি লিজেন্ড ইনজামাম উল হকে ভাতিজা তিনি।  তার এই সেঞ্চুরিতে বুধবার তৃতীয় ওয়ানডেতে সফরকারী শ্রীলঙ্কাকে ৭ উইকেটে পরাজিত করে পাকিস্তান। ২১ বছর বয়সী ইমাম ১২৫ বলে ১০০ রান করেন। তবে অবাক করা বিষয় হলো, এই ইনিংস খেলতে তিনি হাঁকিয়েছেন মাত্র ৫টি বাউন্ডারি আর ২টি ওভার বাউন্ডারি!

ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে ইমাম ১৩ তম ব্যাটসম্যান যিনি অভিষেক ম্যাচেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন।

এর আগে পকিস্তানের সেলিম এলাহি ১৯৯৫ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অভিষেক ম্যাচেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। এই তালিকায় ভারতের লোকেশ রাহুল আছেন। তিনি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০১৬ সালে হারারেতে সেঞ্চুরি হাঁকান।  তবে বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটার এখনো অভিষেক ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানোর ইতিহাস গড়তে পারেননি।

ওয়ানডে অভিষেকে সেঞ্চুরির তালিকা:

০১. ডেনিস এমিস (ইংল্যান্ড): প্রতিপক্ষ- অস্ট্রেলিয়া, ম্যানচেস্টার, ১৯৭২
০২. ডেসমন্ড হেইন্স (ওয়েস্ট ইন্ডিজ): প্রতিপক্ষ- অস্ট্রেলিয়া, এন্টিগা, ১৯৭৮
০৩. এন্ডি ফ্লাওয়ার (জিম্বাবুয়ে): প্রতিপক্ষ- শ্রীলঙ্কা, নিউ প্লাইমাউথ, ১৯৯২
০৪. সেলিম এলাহি (পাকিস্তান): প্রতিপক্ষ- শ্রীলঙ্কা, গুজরানওয়ালা, ১৯৯৫
০৫. মার্টিন গাপটিল (নিউজিল্যান্ড): প্রতিপক্ষ- ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নেপিয়ার, ২০০৯
০৬. কোলিন ইনগ্রাম (দক্ষিণ আফ্রিকা): প্রতিপক্ষ- জিম্বাবুয়ে, ব্লোয়েমফনটেইন, ২০১০
০৭. রবার্ট নিকোল (নিউজিল্যান্ড): প্রতিপক্ষ- জিম্বাবুয়ে, হারারে ২০১১
০৮. ফিলিপ হিউজেস (অস্ট্রেলিয়া): প্রতিপক্ষ- শ্রীলঙ্কা, মেলবোর্ন, ২০১৩
০৯. মাইকেল লাম্ব (ইংল্যান্ড): প্রতিপক্ষ- ওয়েস্ট ইন্ডিজ, এন্টিগা, ২০১৪
১০. এম. চ্যাপমান (হংকং): প্রতিপক্ষ- সংযুক্ত আরব আমিরাত, দুবাই, ২০১৫
১১. লোকেশ রাহুল (ভারত): প্রতিপক্ষ- জিম্বাবুয়ে, হারারে, ২০১৬
১২. টেম্বা বাভুমা (দক্ষিণ আফ্রিকা): প্রতিপক্ষ- আয়ারল্যান্ড, বেনোনি ২০১৬
১৩. ইমাম-উল-হক (পাকিস্তান): প্রতিপক্ষ- শ্রীলঙ্কা, আবুধাবি, ২০১৭


মন্তব্য