kalerkantho


'টেস্ট ব্যাটসম্যান' এর বিধ্বংসী ইনিংস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ আগস্ট, ২০১৭ ১৫:৫১



'টেস্ট ব্যাটসম্যান' এর বিধ্বংসী ইনিংস

ধীরগতির ব্যাটিংয়ের জন্য টেস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবে তকমা পেয়েছিলেন। ছোট দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে তাকে বিবেচনা করা হতো না।

টি-টোয়েন্টি স্টাইলে ব্যাটিং করতে পারবেন বলে বলে কেউ আশাও করত না। জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন। সেই অ্যাডাম লাইথ এবার টি-টোয়েন্টিতে দেখালেন তার ব্যাটিং ঝলক। ইংল্যান্ডের এই ওপেনার ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে ৭৩ বলে ১৬১ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেছেন। ইংল্যান্ডের মাটিতে এটি সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান।

বৃহস্পতিবার হেডিংলিতে নর্দাম্পটনশায়ারের বিপক্ষে ইয়র্কশায়ারের হয়ে খেলেছেন লাইথ। তার ব্যাটিং তাণ্ডবে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৬০ রান সংগ্রহ করে ইয়র্কশায়ার। এটিও একটি রেকর্ড। ইংল্যান্ডে এটাই সবচেয়ে বড় দলী ইনিংস।

২১ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন লাইথ। তিন অংকে পৌঁছতে তার লেগেছে আর মাত্র ২৮ বল। ৪৯ বলে এই সেঞ্চুরি তার টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম।  লাইথের রেকর্ড গড়া ইনিংসে ইয়র্কশায়ার জিতেছে ১২৪ রানে।  

একটা সময় মনে হচ্ছিল টি-টোয়েন্টির সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের বিশ্বরেকর্ড হয়তো ভেঙে দেবেন লাইথ। তার চেয়ে বড় ইনিংস আছে কেবল আর দু জনের। আইপিএলে ক্রিস গেইলের ৬৬ বলে অপরাজিত ১৭৫ আর জিম্বাবুয়ের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিতে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার ৭১ বলে অপরাজিত ১৬২। কিন্তু শেষ ওভারের চতুর্থ বলে ছক্কা মারতে গিয়ে বাউন্ডারি লাইনের ওপর ধরা পড়েন ১৬১ রান করা লাইথ। তার এই দারুণ ইনিংসে ছিল ২০টি চার আর ৭টি ছক্কার মার। ২০ বাউন্ডারি হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়া পাকিস্তানের আহমেদ শেহজাদের সঙ্গী এখন লাইথ।

ইংল্যান্ডের মাটিতে এতদিন সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের রেকর্ড ছিল ব্রেন্ডন ম্যাককালামের অপরাজিত ১৫৮। আর সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংসের দিক দিয়ে ইয়র্কশায়ারকে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে রেখেছে যৌথভাবে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও অস্ট্রেলিয়ার (২৬৩)। ২৯ বছর বয়সী লাইথ ইংল্যান্ডের হয়ে ২০১৫ সালে খেলেছেন ৭টি টেস্ট। কোনো সেঞ্চুরি বা হাফ সেঞ্চুরি ছিল না ক্যারিয়ারে। তাই ক্যারিয়ারটাও কয়েক মাসের বেশি দীর্ঘ হয়নি।


মন্তব্য