kalerkantho


সহ-অধিনায়কত্ব পাওয়া অনেক বড় সম্মানের : রোহিত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ আগস্ট, ২০১৭ ১৩:২৭



সহ-অধিনায়কত্ব পাওয়া অনেক বড় সম্মানের : রোহিত

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে 'উত্থান-পতনের' মধ্য দিয়ে ১০ বছর কেটে গেলেও; এখনো টেস্ট একাদশে নিজেকে থিতু করতে না পারলেও, ভারতের ওয়ানডে দলের সহ-অধিনায়ক নির্বাচিত হওয়াটাকে অনেক বড় সম্মানের মনে করছেন তারকা ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা। ভারতীয় দলের এই তারকা ওপেনার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আগামী রবিবার শুরু হওয়া ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভালো করতে মুখিয়ে আছেন।

সাংবাদিকদের কাছে রোহিত বলেন, 'প্রথমত, দলের সহ-অধিনায়ক হিসেবে নিয়োগ পাওয়াটা অনেক বড় সম্মানের। ১০ বছর আগে আমার চিন্তা ছিল কেবলমাত্র ভারতের হয়ে খেলা। সহ-অধিনায়ক হতে পেরে সত্যিই খুব ভালো লাগছে। আগামী ২০ সেপ্টম্বর প্রথম ওয়ানডে শুরুর আগে এমন সুযোগ পাওয়াটা এক প্রকার সম্মান। সিরিজে আমাকে কিছু দায়িত্ব পালন করতে হবে এবং আমি এ জন্য মুখিয়ে আছি। এ বিষয়ে আমি খুব বেশি ভাবছিনা। এখনকার মত আমি কেবলমাত্র মুহূর্তটিকে উপভোগ করতে চাই। '

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) ৩ বারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের অধিনায়কত্ব করেছেন রোহিত।

আইপিএল এবং ভারতীয় দলের নতুন পাওয়া দায়িত্বের মধ্যে তুলনা করতে বললে রোহিত বলেন, 'এটা সম্পূর্ণ ভিন্ন বিষয়।

আইপিএল এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা সম্পূর্ণ আলাদা। তবে হ্যাঁ, কোনো কিছুতেই খুব পরিবর্তন নেই। এখানে আমি সহ-অধিনায়ক, সেখানে আমি ছিলাম অধিনায়ক। এবং অনেক ক্ষেত্রেই আমি সামনে ছিলাম। এখানে আমাকে কিছুটা ভূমিকা বিবেচনা করে খেলতে হবে। তবে হ্যাঁ, সহ-অধিনায়ক হিসেবে মাঠে নামার সময় আমি অনেক বেশি এক্সাইটেড থাকব। '

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কতটা চড়াই-উতরাই পেরুতে হয় সেটাও বেশ ভালোই বুঝেছেন রোহিত। এখনো টেস্টে সেরা একাদশে নিজের জায়গা পোক্ত করতে পারেননি তিনি। তবে কেবলমাত্র সফরের দ্বিতীয় অংশের দিকেই তাকাতে চান তিনি। রোহিত বলেন, 'প্রথমত ওই ১০ বছর খুবই দ্রুত কেটে গেছে। হ্যাঁ, উত্থান-পতন ছিল। প্রত্যেক খেলোযাড়ের জীবনে যেমনটা ঘটে আমার বেলাতেও তাই হয়েছে। ক্যারিয়ারের উত্থান-পতন থেকে আপনি অনেক কিছু শিখতে পারবেন। '

তিনি আরও বলেন. 'ফরম্যাট কোনো বিষয় না, আমি সব সময়ই ভারতের হয়ে সুযোগের অপেক্ষায় থাকি। গত ১০ বছরের আগে কখনোই ভাবিনি যে আমি ভারতের হয়ে খেলব।  আমি কেবল নিজের স্কুল, মুম্বাইয়ের হয়ে ক্রিকেটটাই উপভোগ করছিলাম। তবে হ্যাঁ, এক পর্যায়ে বুঝতে পারলাম যে ক্রিকেট কঠিন থেকে কঠিনতর হচ্ছে। রনজি খেলার সময় মনে হলো আমি লক্ষ্যে পৌঁছে গেছি। এক পর্যায়ে ভারতীয় দলে ডাক পেলোম, তারপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। '


মন্তব্য