kalerkantho


নেইমারকে ব্যালন ডি'অর পাইয়ে দিতে চেয়েছিলেন মেসি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ আগস্ট, ২০১৭ ১৯:১৪



নেইমারকে ব্যালন ডি'অর পাইয়ে দিতে চেয়েছিলেন মেসি!

বার্সেলোনার জার্সিতে এই ছবি এখন অতীত!

যে মেসির জন্য বার্সেলোনা ছেড়ে, 'এমএসএন থ্রি' ভেঙে দিয়ে পিএসজিতে গেলেন ব্রাজিল সুপারস্টার নেইমার, সেই মেসিই তাকে ফিফা বর্ষসেরার পুরস্কার পাইয়ে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন! স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমে সম্প্রতি এমন বিস্ফোরক খবরটি প্রকাশিত হয়েছে! পিএসজির হয়ে নেইমারের অভিষেকের পর এই নতুন খবর যেন বোমা ফাটিয়েছে ফুটবল অঙ্গনে! নেইমারকে কেন ব্যালন ডি'অর পাইয়ে দিতে চাইবেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার? 

প্রত্যেক ফুটবলারের স্বপ্ন থাকে ব্যালন ড'অর জয় করা। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে তো লিওনেল মেসি আর তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ভাগাভাগি করে এই পুরস্কার নিচ্ছেন।

এমন হলে ৫ বারের বিশ্বকাপজয়ী ব্রাজিলের সবচেয়ে বড় তারকা নেইমার কোথায় যাবেন? মেসির সঙ্গে একই দলে খেলে ব্যালন ডি'অর পাওয়া যাবে না, এমনটাই ধারণা ছিল নেইমারের। তাই বাবার নিষেধ অমান্য করে বিপুল অংকের অর্থের বিনিময়ে বার্সা ছেড়ে পিএসজিতে যান নেইমার।

নেইমার চলে যাওয়ায় স্পষ্টত মহাবিপদে পড়েছে কাতালান ক্লাবটি। ব্রাজিল সুপারস্টারকে আটকানোর অনেক চেষ্টাই করেছিল ক্লাবটি। ক্লাব কর্মকর্তা থেকে শুরু করে নেইমারের সতীর্থরাও পিএসজিতে না যাওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে। কিন্তু তাতে মন গলেনি নেইমারের! বার্সাকে বড় 'ধাক্কা' দিয়েই ফ্রান্সে পাড়ি জমিয়েছেন তিনি। পিএসজির হয়ে অভিষেকও হয়ে গেছে তার। কিন্তু বার্সাভক্তরা যেন ভুলতে পারছে না মেসি-সুয়ারেস-নেইমার দ্বারা গঠিত সেই ভয়ঙ্কর আক্রমণভাগকে।

এএস স্পোর্টস নামকে সেই গণমাধ্যমটির সংবাদে প্রকাশ, জুভেন্তাসের বিপক্ষে প্রাক মৌসুম প্রস্তুতি ম্যাচের আগে নেইমারের সঙ্গে একান্তে বসেন মেসি এবং সুয়ারেস।

সেখানে মেসি সরাসরি বলে দেন, নেইমার যদি ব্যালন ডি'অরের জন্যই বার্সা ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে, তবে তাকে এই পুরস্কার পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করবেন তিনি! এতেও নেইমারের মন গলেনি।

এরপর জুভেন্তাস ম্যাচেও নেইমারের পাশে পাশে থাকতে দেখা গেছে মেসিকে। তাকে বল দেওয়া, গোল করানো, কিংবা আক্রমণে সহায়তা করেছেন। নেইমারকে দেওয়া কথার সঙ্গে মেসির কাজের মিল পাওয়া যাচ্ছিল।  সেদিন মেসির এই উৎসাহেই ম্যাচ জেতানো ২ গোল করেছিলেন নেইমার! আর বার্সা ছাড়ার সিদ্ধান্ত হয়তো তারও আগেই নিয়েছিলেন ব্রাজিল সুপারস্টার।


মন্তব্য