kalerkantho


'দেশসেরা' তামিমের ছাত্র 'ভয়ডরহীন' সৌম্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০১৭ ১৭:৫৬



'দেশসেরা' তামিমের ছাত্র 'ভয়ডরহীন' সৌম্য

এজন অগ্রজ, দেশসেরা ওপেনার হিসেবে খ্যাতি পেয়েছে। আরেকজন অনুজ; তিনি দেশসেরা ওপেনারের যোগ্য সঙ্গী হিসেবে বহু ক্রিকেট ব্যক্তিত্বের বক্তব্যেই স্থান করে নিয়েছেন।

সেই সৌম্য সরকারের ভয়ডরহীন ব্যাটিং দেখে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন খোদ তামিম ইকবাল। বারবার বলেছেন, সৌম্য বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভবিষ্যত। তবে দীর্ঘ রানখরায় কিছুটা ব্যাকফুটে আছেন এই তরুণ ওপেনার।  নিজের ফর্ম ফিরে পেতে এখন তামিমকেও অনুসরণ করছেন সৌম্য।

মিরপুরে চলছে ক্রিকেটারদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। এখানে ফর্ম ফিরে পেতে যেমন কঠোর পরিশ্রম করছেন সৌম্য, তেমনি নিয়মিত অনুসরণ করছেন সতীর্থ তামিম ইকবালকেও। কীভাবে তামিম দিনের পর দিন দুর্দান্ত সব ইনিংস খেলে নিজেকে সবার ওপরে নিয়ে যাচ্ছেন সেটা ভালোভাবে লক্ষ্য করছেন সৌম্য।  

ক্যাম্পের এক ফাঁকে এই নান্দনিক ব্যাটিং শিল্পীকে পাওয়া গেল সংবাদকর্মীদের মাঝে। এক প্রশ্নের জবাবে সৌম্য বললেন, 'ওনার (তামিম) কাছ থেকে আমি নিয়মিতই শিখি।

মাঠে যখন তার সাথে খেলি তখনও আমি দেখি যে তিনি কিভাবে খেলছেন। আমি আমার সমস্যাগুলো নিয়ে কাজ করছি। আশা করি ভাল কিছু করতে পারবো। '

ক্রিকেট জগতে তামিম-সৌম্যর অভিজ্ঞতায় অনেক ফারাক। তামিম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০ বছরেরও বেশি সময় কাটিয়ে দিয়েছেন। আর সৌম্য কেবল আড়াই বছর। আর এই পার্থক্যই সুবিধা বয়ে এনেছে সৌম্যর জন্য। অগ্রজের অভিজ্ঞতা থেকে অনেক কিছু শিখছেন বাংলাদেশের আগামী দিনের তামিম।  ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেকের পর বিধ্বংসী সব ইনিংস উপহার দিয়ে যেভাবে সবার নজর কেড়েছিলেন, সেভাবেই আবারও ফিরে আসতে চান সাতক্ষীরার এই তরুণ।

২০১৫ বিশ্বকাপে তামিমের ওপেনিং সঙ্গী হওয়ার পর থেকে অনেকেই তাদের দেশের সেরা ওপেনিং জুটি হিসেবে দেখছে। স্টাইলিস্ট সৌম্যকে জায়গা দিতে সরে যেতে হয়েছে অভিজ্ঞ ইমরুল কায়েসকে। তিনি কখনো ৩ নম্বরে আবার কখনো একাদশেই জায়গা পান না। এছাড়া সৌম্য বোলিংও করতে পারেন। দলের একান্ত প্রয়োজনে মিডিয়াম পেসার সৌম্যর হাতে বল তুলে দেন অধিনায়ক। একজন পেস বোলিং অলরাউন্ডার হওয়ারও সমূহ সম্ভবনা আছে তার।

নিজের এই সম্ভবনার কথা সৌম্য সম্ভবত জানেন। তিনি বললেন, 'আমি নেটে নিয়মিত বোলিং প্র্যাকটিস করি। দলের প্রয়োজন হলে অবশ্যই বল হাতে সাপোর্ট দেব। '

ফর্মহীনতার মাঝেও কোচ-অধিনায়ক থেকে শুরু করে বিসিবির কর্মকর্তারাও সৌম্যর ওপর আস্থা রেখেছেন। সেই আস্থার প্রতিদান দিতে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন এই তরুণ। সামনে অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ। তারপর বিপিএল। এসব টুর্নামেন্টে সৌম্যকে আবার 'রুদ্র রূপে' দেখতে চান ক্রিকেটপ্রেমীরা।


মন্তব্য