kalerkantho


ভাগ্য খুলতে পারে মোসাদ্দেক সৈকতের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ মার্চ, ২০১৭ ০২:৪১



ভাগ্য খুলতে পারে মোসাদ্দেক সৈকতের

এমনিতেই একাদশ সাজাতে হিমসিম খাচ্ছিলেন কোচ ও ক্যাপ্টেন। মাহমুদউল্লাহর জায়গায় কাকে খেলানো হবে? মুমিনুল থাকবেন কি থাকবেন না? 

গলে খেলা তিন পেসারের মধ্য থেকে একজনকে ছেঁটে ফেলে বাড়তি স্পিনার হিসেবে তাইজুলের অন্তর্ভুক্তি ঘটবে কি না- মঙ্গলবার সারাদিন কলম্বোয় আসা বাংলাদেশের সাংবাদিকদের মাঝে গুঞ্জন।

অবশ্য বিকেল গড়ানোর আগে পি সারায় নেট শুরুর পর একটা বিষয় মোটামুটি পরিষ্কার হয়ে গেলো, মনে হলো মমিনুল থাকছেন না। কারণ ব্যাটিং অর্ডার অনুযায়ী প্রথম চারজনের মধ্যে নেটে যাবার কথা মমিনুলের; কিন্তু তার বদলে শেষ মুহুর্তে দলে আসা ইমরুল কায়েস, অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম ও মেহেদী হাসান মিরাজের সাথে শুরুতেই প্যাড পরে তৈরি মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।  

আর মুমিনুলের পরনে প্যাড ও হাতে ব্যাটিং গ্লাভসের বদলে দেখা গেল বল। প্রথমে সেন্টার উইকেটে তামিমকে নক করানোর সময় আর পরে নেটেও মুমিনুল বোলারের ভুমিকায়। নেটে ব্যাটিং করার সিরিয়াল দেখে মনে হয় মাহমুদউল্লাহর জায়গায়, মানে ছয় নম্বরে খেলানো হচ্ছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে। অথ্যাৎ, শততম টেস্টে অভিষেক হতে যাচ্ছে একজনের!

মুমিনুলকে বাইরে রেখে সৌম্য সরকারকে তিন নম্বরে খেলানোর চিন্তা হয়ত হচ্ছিল। কিংবা তামিম-সৌম্য জুটি ঠিক রেখে মুমিনুলের জায়গায় ইমরুলকে সেট করার কথাও ভাবা হতে পারে। তারপরের ব্যাটিং পজিশনগুলো মুশফিক, সাকিব, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত আর লিটন দাসকে দিয়ে পুরণের চিন্তাও নিশ্চয়ই ছিল; কিন্তু লিটন বুকের ইনজুরিতে মাঠের বাইরে ছিটকে পড়ায় একজন ব্যাটসম্যান কমে গেল। এখন মুমিনুলকে বাদ দিলে ব্যাটসম্যান আরও কমবে।

সে ক্ষেত্রে মুমিনুলের ভাগ্য খুলে যেতে পারে।  

শেষ মুহুর্তে তার দলভুক্তির সম্ভাবনা আছে। কারণ মুমিনুল খেললেই সাত ব্যাটসম্যান হয়। লিটন দাস নেই। তারওপর মুমিনুলকে বাদ দিলে ব্যাটিং লাইনআপ দাঁড়ায় এমন- তামিম, ইমরুল, কিংবা সৌম্য। এদের তিনজনকে নিয়ে তিন টপঅর্ডার। এরপর চারে মুশফিক। পাঁচে সাকিব। ছয় নম্বরে মোসাদ্দেক। তবে টেস্টের অভিজ্ঞতা ও কার্যকরিতা চিন্তা করলে মুমিনুলের কথার সম্ভাবনাই বেশি।  

শেষ পর্যন্ত কার ভাগ্য খুলবে, সেটাই দেখার বিষয়!


মন্তব্য