kalerkantho


টেস্ট ক্রিকেটের জন্মদিনে শততম টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ মার্চ, ২০১৭ ২১:১৪



টেস্ট ক্রিকেটের জন্মদিনে শততম টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ

রাত পোহালেই দারুণ এক মাইলফলকে পৌঁছে যাবে বাংলাদেশের ক্রিকেট। টেস্ট ক্রিকেটে দীর্ঘ ১৬ বছরের পরিক্রমার ধারাবাহিকতায় শততম টেস্টের অধিনায়ক হিসেবে টস করবেন মুশফিকুর রহিম।

তার আগে এই গৌরবের অংশ হয়েছে আরও ৯জন ক্রিকেটার। তারা হলেন অস্ট্রেলিয়ার সিড গ্রেগরি, ইংল্যান্ডের আর্চি ম্যাকলারেন, দক্ষিণ আফ্রিকার ডাডলি নার্স, ওয়েস্ট ইন্ডিজ কিংবদন্তি স্যার গ্যারি সোবার্স, ভারতের মনসুর আলী খান পতৌদি, শ্রীলঙ্কার সনাৎ জয়াসুরিয়া, পাকিস্তানের মুশতাক মোহাম্মদ, নিউজিল্যান্ডের বেভান কংডন, এবং জিম্বাবুয়ের গ্রায়েম ক্রেমার। মুশফিক হবেন শততম টেস্টে দেশকে নেতৃত্ব দেওয়া বিশ্বের দশম ক্রিকেটার।

এছাড়া ১৫ মার্চ টেস্ট ক্রিকেটের জন্যও একটি বিশেষ দিন। আজ থেকে ১৪০ বছর আগে ১৮৭৭ সালের ১৫ মার্চ মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে যাত্রা শুরু হয়েছিল টেস্ট ক্রিকেটের। কাকতালীয় ভাবেই হয়তো বাংলাদেশ এই দিনটিতেই ইতিহাসের অংশ হতে যাচ্ছে। কলম্বোর পি সারা ওভালে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১০টায় শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হচ্ছে টিম টাইগার।
২০০০ সালের ১০ নভেম্বর ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টেস্ট আঙ্গিনায় পথচলা শুরু হয় টাইগারদের। সৌরভ গাঙ্গুলীর নেতৃত্বাধীন ভারতের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪০০ রান করে নাইমুর রহমান দুর্জয়ের দল।

জিম্বাবুয়ের পর বিশ্বের দ্বিতীয় দল হিসেবে অভিষেক টেস্টে ৪০০ রান করে বাংলাদেশ। অভিষেক ম্যাচেই প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পায় বাংলাদেশ। ১৪৫ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন আমিনুল ইসলাম বুলবুল। যা ডেব্যু ম্যাচে ব্যক্তিগত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ইনিংস। বুলবুলের আগে আছেন কেবল অস্ট্রেলিয়ার চার্লস ব্যানারম্যান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে তিনি ১৬৫ রান করেছিলেন।
টেস্ট অভিষেকের পর প্রথম জয় পেতে ৩৫ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় বাংলাদেশকে। এখন পর্যন্ত ৯৯টি টেস্টে মোট ৮টি জয়ের স্বাদ পেয়েছে তারা। ১৫টি ম্যাচ ড্র করলেও, হেরেছে ৭৬টি। এরমধ্যে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই সবচেয়ে বেশি ১৭ টি টেস্ট খেলে ১৫টিতেই হেরেছে বাংলাদেশ। সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই শততম টেস্টে ভালো কিছু করার স্বপ্ন দেখছে মুশফিকরা। স্বপ্ন দেখছে গোটা বাংলাদেশ। টেস্টকে স্মরণীয় করে রাখতে ইতিমধ্যেই নানা উদ্যোগ নিয়েছে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড। থাকছে বিশেষ ক্রেস্ট, স্মরণিকা, ব্লেজার, নৈশভোজসহ অনেক কিছু।
ওয়ানডেতে সবার বিপক্ষে জয় পেলেও এখন পর্যন্ত ৩টি দেশকে টেস্ট ক্রিকেটে হারাতে পেরেছে বাংলাদেশ। দেশগুলো হলো জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং ইংল্যান্ড। একমাত্র অস্ট্রেলিয়ার কাছেই সব ম্যাচ (৪টি) হেরেছে টাইগাররা। ৩৫৪৬ রান নিয়ে টেস্টে বাংলাদশের সর্বোচ্চ রানের মালিক তামিম ইকবাল। আর ১৭০ উইকেট নিয়ে শীর্ষে আছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। শততম টেস্টে এই দুজনের দিকে তাকিয়ে থাকবে বাংলাদেশ। একটি জয় এই শততম টেস্টকে অমরত্ব দিতে পারে।


মন্তব্য