kalerkantho


স্বাগতিক হওয়ার বিড়ম্বনায় নিউজিল্যান্ড!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ মার্চ, ২০১৭ ১৯:২৫



স্বাগতিক হওয়ার বিড়ম্বনায় নিউজিল্যান্ড!

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ডানেডিন টেস্টে নিউজিল্যান্ড স্বাগতিক হবার সুবিধা নেয়নি বলে মনে করেন প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ দু'প্লেসিস। নিউজিল্যান্ড সাধারণত সবুজ ঘাসের সংমিশ্রণে দ্রুত গতির পিচ তৈরি করে থাকে। কিন্তু ডানেডিন টেস্টে সেটি ছিলো না বলে মন্তব্য করেছেন দু'প্লেসিস। নিউজিল্যান্ড স্বাগতিক হওয়ার সুবিধা নেয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, নিউজিল্যান্ডে এমন উইকেটে আমরা কোনোদিন খেলিনি। সিরিজের প্রথম এই টেস্টটি পঞ্চম দিনে বৃষ্টির কারণে ড্র হয়।

তবে ডানেডিন টেস্টের পিচ দেখে অবাক সফরকারী অধিনায়ক বলেন, "এটি নিউজিল্যান্ডের গতানুগতিক উইকেট ছিলো না। আমি জানি না কোন কৌশল হিসেবে নিউজিল্যান্ড উইকেট পরিবর্তন করেছে। গত দুবছর ধরে আমরা যতবারই এখানে খেলেছি উইকেট ছিলো সবুজ। সিম ও সুইংয়ের দিক দিয়ে নিউজিল্যান্ডের সাথে আমাদের উইকেটের সাথে অনেক মিল আছে। রৌদ্রজ্জল আবহাওয়ায় ভালো রান করা সম্ভব এখানে। তবে এবার এখানকার কন্ডিশন আমাদের অবাক করেছে।

"

এবারের নিউজিল্যান্ড সফরে দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোয়াডে ৬ জন পেসার আছে। স্পিনের চাইতে পেসের দিকেই বেশি নজর প্রোটিয়াদের। কিন্তু কন্ডিশন দেখে দু'প্লেসিস বুঝতে পেরেছেন নিউজিল্যান্ড তাদের পেস আক্রমণের পরিকল্পনা ভেস্তে দেওয়ার জন্যই স্পিন সহায়ক উইকেট বানিয়েছে। তার ভাষায়, "নিউজিল্যান্ডে স্বাভাবিকভাবেই আমাদের পরিকল্পনায় দুই স্পিনার ছিলো না। কিন্তু এখানকার কন্ডিশনে অনেক পরিবর্তন হয়েছে এবং আমরা এখন বুঝতে পারছি, নিউজিল্যান্ড স্পিনারদের জন্য কন্ডিশন তৈরি করেছে। "

ডানেডিন টেস্টে সেরা একাদশে মাত্র একজন স্পিনার রেখেছিলো দক্ষিণ আফ্রিকা। বাঁ-হাতি কেশব মহারাজ সিরিজের প্রথম টেস্টে নিজের জাত চিনিয়েছিলেন। প্রথম ইনিংসে ৯৪ রানে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই ক্রিকেটার। তাই পরের টেস্টগুলোতে একাদশে আরও স্পিনার খেলার পরিকল্পনার ইঙ্গিত দিলেন দু'প্লেসিস।  ওয়েলিংটনে আগামী ১৬ মার্চ থেকে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।


মন্তব্য