kalerkantho


ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগে দল পেলেন সাকিব

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ মার্চ, ২০১৭ ০৩:০৬



ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগে দল পেলেন সাকিব

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগে সাকিব আল হাসান থাকছেন বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি। গতবারের মতো এবারও ক্যারিবিয়ার ক্রিকেট উন্মাদনার মাটিতে লাল-সবুজের ঝাণ্ডাটা বয়ে বেড়ানোর দায় একা সাকিবের।

গতকাল শুক্রবার বড় পার্টির আয়োজন করেই বার্বাডোজে হয়ে গেল ২০১৭ ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগ বা সিপিএলের আকর্ষণীয় ড্রাফট। সেখানে সাকিবকে তার গেলোবারের দল জ্যামাইকা তাল্লাওয়াহস ধরে রেখেছে। কিন্তু বাংলাদেশের আর যে ক'জন খেলোয়াড় ড্রাফটে ছিলেন তাদের কেউ দল পেলেন না সিপিএলে।

এবারের আইপিএলের মতো সিপিএলেও চমক এসেছে আফগানিস্তান থেকে। এই প্রথম কোনো আফগান সিপিএলে খেলবেন। একজন নয়, দুজন। সাবেক অধিনায়ক অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবি ও টিনএজার লেগস্পিনার রশিদ খানের আইপিএলের পরই অভিষেক হবে সিপিএলে। নবিকে সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস ৯০,০০০ হাজার ডলার দিয়ে কিনেছে। আর গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স ৬০,০০০ ডলারে রশিদকে দলে টেনেছে।

 

২০১৭ ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট লীগের (সিপিএল) জন্য ক্রিকেট বিশ্বের ২৫৮ জন খেলোয়াড়ের নাম গেল গত বুধবার প্রকাশ করে সংস্থাটি। ১০ মার্চ বার্বাডোজে জমজমাট আয়োজন ছিল। খেলোয়াড় ড্রাফট। এই ড্রাফটে সাকিব ছাড়া ছিলেন বাংলাদেশের আরো ৪ খেলোয়াড়। তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, তাসকিন আহমেদ ও এনামুল হক বিজয় হলেন সেই খেলোয়াড়।

এবারের আসরটি ১ আগস্ট থেকে ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে হবে। ফিকশ্চার এখনো হয়নি। গেল বছরের ড্রাফটে বাংলাদেশের সাত খেলোয়াড় ছিলেন।

সাকিব সম্প্রতি আবার হয়েছেন আন্তর্জাতিক তিন সংস্করণেই সেরা। তার কদর সব লীগেই। কিন্তু বাংলাদেশের অন্য সুপারস্টাররা সেই হিসেবে আন্তর্জাতিক প্রত্যাশাপূরণে কিছুটা হয়তো পিছিয়েই আছেন মানতে হবে। নইলে টানা দ্বিতীয় বছর কেন একাই সিপিএলে দেশের পতাকা ওড়ানোর দায়িত্ব নিতে হবে সাকিবকে?

সাকিবদের জ্যামাইকা কুমার সাঙ্গাকারা, ইমাদ ওয়াসিম, লেন্ডল সিমন্সদের নিয়ে ভালো দলই গড়েছে। দু'বারের সিপিএল চ্যাম্পিয়ন তারা। গেলবারও শিরোপাটা উঠেছিল তাদের ঘরে।

সাকিবদের জ্যামাইকা তাল্লাওয়াহস দল : লেন্ডল সিমন্স, কুমার সাঙ্গাকারা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, ইমাদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ সামি, রবম্যান পাওয়েল, গার্ডন পোপ, কেসরিক উইলিয়ামস, গ্যারি ম্যাথুরিন, জন-রাস জাগেশ্বর, ক্রিশমার সান্টোকি, জোনাথন ফু, কেনার লুইস, অ্যান্ড্রে ম্যাকার্থি, ওডিন স্মিথ, ও'শেন থমাস (তরুণ কোটা), টিমোরি অ্যালেন (আইসিসি আমেরিকা বিশেষ)।


মন্তব্য