kalerkantho


যুদ্ধকালীন প্রস্তুতিতে আজ পিএসএল ফাইনাল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ মার্চ, ২০১৭ ১৯:২১



যুদ্ধকালীন প্রস্তুতিতে আজ পিএসএল ফাইনাল

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে পাকিস্তান সুপার লিগের ফাইনাল ম্যাচটির জন্য ১৫ হাজার নিরাপত্তাকর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। তিন দিন ধরে স্টেডিয়ামের আশেপাশে সব যান ও পথচারী চলাচল বন্ধ। কিন্তু দেশটা যেহেতু পাকিস্তান, তাই হামলার আশঙ্কা মাথায় নিয়েই আজ রাতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পিএসএল ফাইনাল। বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় শিরোপা লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরস ও পেশোয়ার জালমি।

পাকিস্তান যে ক্রিকেট খেলার জন্য নিরাপদ তা প্রমাণ করতে মরিয়া পিসিবি। এই লাহোরেই ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের বাসে হামলা করেছিল জঙ্গিরা। সেই শহরে পিএসএল ফাইনাল ‘নির্বিঘ্নে’ আয়োজন করে হয়তো দেশকে নিরাপদ প্রমাণ করতে চাইছে পাকিস্তান। তবে তাদের এই নিরাপত্তায় আস্থা না রেখে ইতিমধ্যেই অধিকাংশ বিদেশি ক্রিকেটার দুবাই থেকেই দেশে ফিরে গেছেন। তাই তারকাবিহীন শো হতে যাচ্ছে ম্যাচটি। এছাড়া সম্প্রচার সংস্থাও চুক্তি বাতিল করেছে।

গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের গ্যালারি যে আজ কানায় কানায় ভর্তি থাকবে তা বলাই বাহুল্য।

এই বিপুল সংখ্যক দর্শককে নিরাপত্তা দিতে যুদ্ধকালীন প্রস্তুতি নিয়েছে পাকিস্তান। ১৫ হাজার নিরাপত্তারক্ষী ছাড়াও ৩০০ স্বাস্থ্য ও দমকলকর্মী থাকবে স্টেডিয়াম এলাকায়। জরুরি সহায়তার জন্য কয়েকশ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত থাকবে। হেলিকপ্টার নিয়ে থাকবে উদ্ধারকারী দল। এত কিছুর পরও ম্যাচটি ঘিরে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা কেউ উড়িয়ে দিতে পারেনি। রক্তপিপাসু জঙ্গিদের মোকাবেলা করেই দেশে ক্রিকেট ফেরাতে হবে পাকিস্তানকে।


মন্তব্য