kalerkantho


যে বই বদলে দিয়েছিলো বিরাট কোহলির জীবন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:২৮



যে বই বদলে দিয়েছিলো বিরাট কোহলির জীবন

একটা বই বদলে দিতে পারে একটা মানুষের জীবন। লিখতে পারে সাফল্য, ব্যর্থতার কাহিনি।

মানুষের জীবনে বইয়ের অবদান এমনটাই। ব্যাতিক্রম নন স্বয়ং ভারত অধিনায়কও। বিরাট কোহলি খোলসা করলেন তার জীবনে বইয়ের অবদানের কথা। জানালেন কীভাবে একটি বই বদলে দিয়েছিলো তাকে।

একটা বই-ই বদলে দিয়েছিলো জীবন। দেখিয়েছিলো সাফল্যের রাস্তা। সম্প্রতি পর পর চার সিরিজে চারটি ডবল সেঞ্চুরি। ছাপিয়ে গিয়েছেন ডন ব্র্যাডম্যান ও রাহুল দ্রাবিড়কে। গত এক বছরের বেশি সময় ধরে রয়েছেন সাফল্যের শীর্ষে।

ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি নিজেই জানিয়েছেন তার সাফল্যের নেপথ্যে রয়েছে একটি বই। একটি জীবন কাহিনি। পরমহংস যোগানন্দর 'অটোবায়োগ্রাফি অফ যোগি' কীভাবে বদলে দিয়েছে বিরাটের জীবন, সেটাই তিনি জানিয়েছেন ইনস্টাগ্রামে। বলেন, এটা আমার খুব প্রিয় বই। তাদের সকলেরই এই বই পড়া উচিত যারা নিজের চিন্তা ভাবনা ও মতাদর্শকেই চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলার সাহস রাখে। এই বইটি প়়ড়ার পর, বোঝার পর এবং জীবনে সেই অনুযায়ী চলার পর সবটাই বদলে যাবে।

অতীতে কোহলির ছোটবেলার কোচ রাজকুমার শর্মা বিরাটের উত্থান নিয়ে নানা বক্তব্য রেখেছেন। জানিয়েছেন কীভাবে ২৮ বছরের ব্যাটসম্যান একজন প্রতিভাবান প্লেয়ার থেকে একজন গ্রেট প্লেয়ার হয়ে উঠলেন। তিনি সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, কোহলি আমাকে একবার বলেছিল, আমি যদি অধিনায়ক হিসেবে একটা লক্ষ্য স্থির না করি তা হলে কে করবে? সারা বিশ্ব যাকে দেখে বিস্মিত সেই মানুষটির পিছনের ছেলেটিকে আমি জানি। জানি কীভাবে প্রিয় বাটার চিকেন, রোল, ফাস্টফুড খাওয়া ছেড়েছে ও। তিনি আরও বলেন, ও খুব হিসেব করে খায়। তাই আমার বাড়িতে এলে ওকে কখনও প্যাকেটের জুস দেওয়া হয় না। তাজা ফলের জুস দিতে হবে অথবা কিছু না।


মন্তব্য