kalerkantho


আশা-নিরাশার দোলে চতুর্থ দিন শেষ করল বাংলাদেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:১৬



আশা-নিরাশার দোলে চতুর্থ দিন শেষ করল বাংলাদেশ

টেস্টটি ড্র করতে হলে চতুর্থ দিনের শেষ সেশনে উইকেট হারানো সমীচিন ছিল না। কিন্তু বাংলাদেশের ক্ষেত্রে সেটাই হলো। একটি উইকেট নয়, তিন তিনটি উইকেট হারাল বাংলাদেশ। তামিম আউট হওয়ার পর সৌম্য আর মমিনুল মিলে বড় জুটির ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কিন্তু জুটি অর্ধশত পার করতেই আজিঙ্কা রাহানের দারুণ এক ক্যাচে ফিরেন সৌম্য। তার কিছু পরে ফিরে যান মমিনুলও। বাংলাদেশ এখন ৩৫৬ রানে পিছিয়ে আছে। তার চেয়েও বড় কথা হলো, ম্যাচ বাঁচাতে আগামীকাল পঞ্চম দিন তিন সেশন ব্যাট করতে হবে বাংলাদেশকে।

চতুর্থ দিনে ৩৮৮ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। একমাত্র সেঞ্চুরি করেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। তিনি ১২৮ রান করে আউট হলে থামে বাংলাদেশ।

এরপর ফলোঅন না করিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে মাঠে নামে ভারত। টার্গেট ছিলে দ্রুত সময়ের মধ্যে কিছু রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করা। এই পরিকল্পনায় সফল হয় তারা। যদিও বাংলাদেশি বোলাররা ৪টি উইকেট তুলে নেন। তাসকিন পর পর দুই ওভারে ফিরিয়ে দেন মুরালি বিজয় (৭) আর লোকেশ রাহুলকে (১০)। এরপর সাকিব আল হাসান ফিরিয়ে দেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি (৩৮) এবং আজিঙ্কা রাহানেকে (২৮)। ৪ উইকেটে ১৫৯ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। বাংলাদেশের সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ৪৫৯ রানের।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই তামিমের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দলীয় ১১ রানে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল (৩)। প্রথম ইনিংসের মত দ্বিতীয় ইনিংসেও তিনি ব্যর্থ। তামিমকে ফেরাতে অবশ্য রিভিউ নিতে হয়েছে ভারতকে। এরপর মমিনুলের সঙ্গে অর্ধশতাধিক রানের জুটি গড়ে ফিরলেন ওপেনার সৌম্য সরকার। দলীয় ৭১ রানে রবিন্দ্র জাদেজার বলে রাহানের তালুবন্দী হওয়ার আগে তিনি ৬৬ বলে ৭ বাউন্ডারিতে ৪২ রান করেন। এরপর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি আরেক টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান মমিনুল হকও। অশ্বিনের বলে ব্যক্তিগত ২৭ রানে বোল্ড হয়ে যান তিনি।

চতুর্থ দিন শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৩ উইকেটে ১০৩ রান। দুই ব্যাটসম্যান মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ ৯ এবং সাকিব আল হাসান ২১ রানে অপরাজিত আছেন।


মন্তব্য