kalerkantho


এটাও কি সাকিবের স্টাইল?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৩:৫৪



এটাও কি সাকিবের স্টাইল?

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় তারকাটি আবার সবচেয়ে বেশি সমালোচিতও হয়ে থাকেন। দেশের হয়ে অসংখ্য কীর্তি গড়েছেন তিনি।

একসময় ছিলেন ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার। সেই সাকিবকেই বারবার সমালোচনার মুখে পড়তে হয় দলের প্রয়োজনের সময়ে উচ্চাভিলাষী কিংবা বাজে শট খেলে আউট হওয়ার জন্য। তবে সাকিব মোটেও চিন্তিত নন তার এভাবে আউট হওয়া নিয়ে। তিনি এভাবেই খেলতে চান, এটাই নাকি তার স্টাইল!

হায়দরাবাদ টেস্টে ভারতের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে কোনো উইকেট পাননি। ম্যাচের তৃতীয় দিনে সাকিব-মুশফিকের জুটিতে যখন ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল বাংলাদেশ তখন হুট করে বাজে এক শট খেলে আউট হয়ে যান ৮২ রান করা সাকিব। এর পরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ ক্রিকেটাঙ্গনে শুরু হয় সমালোচনা। বিশ্বের অন্যতম সেরা একজন ব্যাটসম্যান কীভাবে এমন বাজে শট খেলে আউট হতে পারেন! আরেকটু ধৈর্য ধরলেই আরেকটা সেঞ্চুরি পেতেন তিনি। দল পেত আরও কিছু রানের দেখা। দিনশেষে সংবাদ সম্মেলনে যখন সাকিবকে প্রশ্ন করা হলো, সাকিব জানিয়ে দিলেন তিনি ব্যাটিং ধরন বদলাবেন না।

সাকিবের ভাষায়, "আসলে আমি অত কিছু চিন্তা করে ব্যাটিং করি না। আমি দলের জন্য অবদান রাখতে চাই। ইতিবাচক মনোভাব নিয়েই আমি ব্যাটিং করেছি। শেষ পাঁচ-ছয় বছর ধরে যেভাবে খেলছি, সেটা আমি বদলাতে চাই না। "

কিন্তু তিনি কি আদৌ দলের জন্য অবদান রাখতে পেরেছেন। শুরু থেকেই তার ওই ওয়ানডে স্টাইল ব্যাটিং টেস্ট ম্যাচের জন্য দর্শনীয় কিছু ছিল না। এর আগে ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের দুই ইনিংসে আউট হয়েছিলেন বাজে শটে। তার আগের টেস্টে ওয়েলিংটনে প্রথম ইনিংসে ২১৭ রান করার পর দ্বিতীয় ইনিংসে শূন্য রানে ফিরেছিলেন ভীষণ দৃষ্টিকটু এক শটে। এর আগে ইংল্যান্ড সিরিজে চট্টগ্রামে মইন আলিকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে জন্ম দিয়েছিলেন তুমুল সমালোচনার। জেতা ম্যাচ হেরে গিয়েছিল বাংলাদেশ।

সেই বাজে শটের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখলেন সাকিব। দলের বিপদে হাল ধরাই দলের জন্য সত্যিকারের অবদান রাখা। হায়দরাবাদে যেমনটা দেখিয়েছেন অধিনায়ক মুশফিক কিংবা মেহেদী মিরাজ। তুখোড় ক্রিকেটীয় মস্তিষ্কের অধিকারী বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডারকে অনেক ম্যাচেই স্বার্থপর ব্যাটিং করছেন বলে মনে হয়। একই অভিযোগ আছে আরও দু-একজন তারকার বিরুদ্ধে। এর আগে এক তরুণ তারকার ক্যারিয়ারই শেষ হয়ে গেছে স্বার্থপর ব্যাটিংয়ের জন্য। অনেক কীর্তি গড়া সাকিবকে 'স্বার্থপর' বলা কঠিন। তবে তাকে দলের কথা ভাবতে হবে। ম্যাচের পরিস্থিতি ভাবতে হবে। 'এটা আমার স্টাইল' বলে দায়িত্ব এড়ানো তাকে মানায় না।

তবু হায়দরাবাদ টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থেকেই সাকিব বললেন, "নিজের খেলার ধরন বদলাব না। যদি ধরন বদলাই, তাহলে আমি আর সাকিব থাকব না। এটা আমার সহজাত খেলা। আমি এভাবেই ভাবি। "


মন্তব্য