kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাকিবময় চট্টগ্রাম টেস্ট বাংলাদেশের হবে তো?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:২২



সাকিবময় চট্টগ্রাম টেস্ট বাংলাদেশের হবে তো?

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান সিরিজের প্রথম টেস্টে বেশ কয়েকটি প্রাপ্তি ঘটেছে বাংলাদেশ দলের অল রাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। ম্যাচের তৃতীয় দিন তিনি টেস্ট ক্রিকেটে ১৫তম বার ৫ উইকেট শিকারের নজির স্থাপন করেছেন।

অতিক্রম করেছেন ১৫০ টেস্ট উইকেট শিকারের মাইলফলক। এ ছাড়া অপেক্ষায় আছেন অলরাউন্ডার হিসেবে ব্যাট হাতে তিন হাজার রানের ক্লাবে যোগ দেয়ার। সাকিবের ব্যাক্তিগত রেকর্ডের এই দিনে বাংলাদেশে কিন্তু অনেকটাই ব্যকফুটে।

তৃতীয় দিন সকালেই বাংলাদেশ অলআউট হয়ে গেলে আজ জো রুটকে ফিরিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসের বোলিং শুরু করেন ক্রিকেট বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় অল রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এর পর একে একে নিজের সংগ্রহশালায় পুরে নেন বেন ডাকেট, মঈন আলী, বেন স্টোকস এবং সবশেষে ৫ম উইকেট হিসেবে আদিল রশিদকে। ফলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয়বারের মত এক ইনিংসে ৫ উইকেট সংগ্রহ করেন সাকিব। ক্যারিয়ারে ১৫তম ৫ উইকেট সংগ্রহের পাশাপাশি ১৫০ উইকেট সংগ্রহের মাইলফলকটিও স্পর্শ করেন সাকিব আল হাসান।

১৪৭ উইকেটের পুঁজি নিয়ে চট্টগ্রাম টেস্টে খেলা শুরু করেন সাকিব। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই টেস্ট সিরিজের ১ম টেস্টের প্রথম ইনিংস থেকে ২উইকেট নিয়ে ১৪৯ উইকেটে পৌঁছান তিনি। আজ দ্বিতীয় ইনিংস থেকে আরো ৫টি উইকেট সংগ্রহ করলে সাকিবের সংগৃহীত টেস্ট উইকেট সংখ্যা দাঁড়ায় ১৫৪টি। ফলে অতিক্রম করেন ১৫০ উইকেট শিকারের মাইলফলক। এই মাইলফলক স্পর্শ করতে সাকিব খেলেছেন ৪৩টি ম্যাচ।

এদিকে টাইগার দলের এই অল রাউন্ডারের সামনে এখন হাতছানি দিচ্ছে ৩ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদ। আর মাত্র ১৪৬ রান সংগ্রহ করতে পারলেই টেস্ট অল রাউন্ডারদের এই অভিজাত ক্লাবে ঢুকে যেতে পারবেন তিনি। যেখানে ইতোমধ্যে অবস্থান করছেন ৯ অল রাউন্ডার। যাদের মধ্যে আছেন গ্যারি সোবার্স , কপিল দেব, ইমরান খানসহ বিশ্ব কাপানো অল রাউন্ডাররা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১ম ইনিংসে ৩১ রান সংগ্রহ করায় সাকিবের সংগৃহীত বর্তমান রান সংখ্যা ২ হাজার ৮৫৪।

আট উইকেট হারিয়েও এখন বাংলাদেশের চাইতে বেশ শক্ত অবস্থানেই আছে সফরকারীরা। এমন 'ভয়াবহ' টার্নিং উইকেটেও ২৭৩ রানের লিড ইতোমধ্যেই নিয়েছে তারা। বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং যদি প্রথম ইনিংসের মতই হয় তবে চট্টগ্রাম টেস্ট জয়ের স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে।  অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে আগামীকালই বোঝা যাবে ম্যাচের ভাগ্যে কী আছে। সাকিবময় চট্টগ্রাম টেস্ট শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের হবে তো?


মন্তব্য