kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কাঁপতে কাঁপতে লাঞ্চে গেল ইংল্যান্ড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ১২:১২



কাঁপতে কাঁপতে লাঞ্চে গেল ইংল্যান্ড

আক্ষরিক অর্থেই কাঁপতে কাঁপতে তৃতীয় দিনের লাঞ্চে গেল ইংল্যান্ড। ১১.২ ওভারেই দ্বিতীয় ইনিংসের ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে তারা।

বাংলাদেশের দুই স্পিনার সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান মিরাজের আঘাতে একে একে অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক (১২), জো রুট (১) ও বেন ডাকেটকে (১৫) হারিয়েছে তারা। প্রথম ইনিংসে তাদের লিড ছিল ৪৫ রানের। এখন যা ৭৩ রানের। ২৮ রান নিয়ে ৩ উইকেটের ক্ষতির সাথে আহারে গেল তারা।

চট্টগ্রামে সকালটা বাংলাদেশের জন্য নিদারুণ ছিল। ২৭ রানের মধ্যেই ৫ উইকেট হারিয়ে তারা প্রথম ইনিংসে অল আউট ২৪৮ রানে। কিন্তু উইকেট যে আসলে ব্যাটসম্যানদের জন্য ভয়াবহ হয়ে উঠছে তার প্রমাণ মিলতে শুরু করে। অভিষেকে ৬ উইকেট নেওয়া মেহেদী ও দেশের সেরা বোলার সাকিব দুই প্রান্ত থেকে শুরুতেই আক্রমণ শুরু করেন।

প্রথম ইনিংসের মতো এবারও প্রথম আঘাত মেহেদীর। দলীয় ৬ রানের সময় অভিজ্ঞ কুক স্লিপে ক্যাচ দিলেন। সেই উৎসব ১ রান পরই বাড়িয়ে দিলেন সাকিব। ইংলিশদের ব্যাটিংয়ের ভিত্তি জো রুট এলবিডাব্লিউর শিকার। ঠিক পরের ওভারে আবার আঘাত সাকিবের। এবার তার বলে শর্ট লেগে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন ডাকেট।

বাংলাদেশ শুরুতেই চেপে ধরেছে ইংলিশদের আর উইকেটের যে অবস্থা তাতে এখানে ইংল্যান্ড ২৫০ রানের লিড নিলে বাংলাদেশের জন্য ম্যাচ শেষ হয়ে যেতে পারে ওখানেই। ভাঙা পিচে চতুর্থ ইনিংসে ওই রান করে জেতার কথা ভাবাও কল্পনার মতো হবে। তাই ইংলিশদের যত দ্রুত সম্ভব অল আউট করার টার্গেটে অল আউট আক্রমণের দিকেই যাচ্ছে টাইগাররা।

দ্বিতীয় দিনে ইংলিশদের ২৯৩ রানে অল আউট করার পর ৭৪ ওভার ব্যাট করেছে বাংলাদেশ। ৫ উইকেটে ২২১ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু। কিন্তু তারপর আর ১২ ওভার ব্যাট করে ২৭ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারিয়ে শেষ ২৪৮ রানে। সাকিবের ওপর ছিল ভরসা। কিন্তু দিনের দ্বিতীয় বলে আউট তিনি আগের দিনের ৩১ রানে। দুই অভিষিক্ত সাব্বির রহমান (১৯) ও মেহেদীর (১) ব্যাট প্রয়োজন মেটাতে পারল না। বেন স্টোকস শেষে ৩ উইকেট নিয়ে গুটিয়ে দিয়েছেন টাইগারদের।


মন্তব্য