kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


৩৩ ওভার বল করেও ক্লান্ত নন মেহেদি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:৪৬



৩৩ ওভার বল করেও ক্লান্ত নন মেহেদি!

স্বপ্নের মত টেস্ট অভিষেক হয়ে গেল তরুণ স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজের। তার স্পিন বিষে নাস্তানাবুদ ইংল্যান্ড দিনশেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫৮ রান সংগ্রহ করেছে।

সেই ৭ উইকেটের মধ্যে ৫ উইকেট নিজের ঝুলিতে পুরে অভিষেকে অনন্য কীর্তি গড়েছেন মেহেদি। প্রয়োজনের সময় ব্রেক থ্রু দিয়েছেন দলকে। প্রথম দিনেই ৩৩ ওভার বল করে হয়ে উঠেছেন অধিনায়কের আস্থার প্রতীক।

বেন ডাকেটকে বোল্ড করে নিজের প্রথম টেস্ট উইকেট অর্জন করেন মেহেদি। তখন ইংল্যান্ডের রান মাত্র ১৮। এরপর ইংল্যান্ডের ইতিহাসে সর্বোচ্চ টেস্ট খেলার রেকর্ড অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুককে (৪) সাকিব বিদায় করলে ইংলিশদের স্কোর দাঁড়ায় ২ উইকেটে ১৮। এরপর আবার মেহেদি ম্যাজিক। গ্যারি ব্যালান্স ১ রান করেই মেহেদির শিকারে পরিণত হন। লাঞ্চের পর মেহেদির তৃতীয় শিকারে পরিণত হন বিপজ্জনক জো রুট(৪০)। লাস্ট সেশনে আবারও বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রু এনে দেন মেহেদি। ৮৮ রানের জুটি গড়া দুই সেট ব্যাটসম্যান মঈন আলী(৬৮) এবং বেয়ারস্টো(৫২) শিকারে পরিণত হয় তার। মেহেদি প্রবেশ করেন অভিষেকে পাঁচ উইকেটধারীদের অভিজাত ক্লাবে।

এমন দারুণ পারফর্মেন্সের কারণে অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম তাকে বারবার বোলিংয়ে এনেছেন। টেস্টে বোলিংয়ে বাংলাদেশের মূল ভরসা বিশ্বসেরা সাকিব আল হাসান যেখানে মাত্র ১৯ ওভার বল করেছেন সেখানে মেহেদি করেছেন ৩৩ ওভার! এছাড়া তাইজুল ১৭ ওভার বল করে রয়েছেন উইকেটশুন্য। স্পষ্টই বোঝা যায় ইংলিশদের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন এই ১৮ বছর বয়সী তরুণ। কিন্তু মাঠে এতটা শ্রম দেওয়ার পরও দিনশেষে তাকে মোটেও ক্লান্ত লাগেনি। এমনকী টিভিতে সাক্ষাতকার দেওয়ার সময়ও বলেন, “আমার এখনও ক্লান্ত লাগছে না। ঘরোয়া ক্রিকেটে আমি লম্বা সময় বল করে অভ্যস্ত। ” চলতি টেস্টে মুশির ট্রাম্পকার্ড যে মেহেদি তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।


মন্তব্য