kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বাংলাদেশের স্পিন সামলে মঈনের ব্যাটে ইংল্যান্ডের প্রতিরোধ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ১৫:০৪



বাংলাদেশের স্পিন সামলে মঈনের ব্যাটে ইংল্যান্ডের প্রতিরোধ

২১ রানে নেই ৩ উইকেট। সেখান থেকে ইংল্যান্ড ৩ উইকেটেই ৮১ রানে গিয়েছিল লাঞ্চে।

লাঞ্চ থেকে ফিরেই আরো ২ উইকেট হারাল। তাতে ১০৬ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে দারুণ বিপদে তারা। বাংলাদেশের স্পিনারদের হাতে কাবু তারা। কিন্তু ৩ উইকেট পড়ার পর ক্রিজে এসে তিনবার রিভিউ নিয়ে আউটের সিদ্ধান্ত বদলে ফেলা মঈন আলি দারুণ লড়াই দেখিয়েছেন। তাতে ইংলিশরা চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের চার বিরতিতে গেছে ৫ উইকেটে ১৭৩ রান নিয়ে। মঈন ৬১ ও জনি বেয়ারস্টো ২৬ রানে। তাদের অবিচ্ছিন্ন ষষ্ঠ উইকেট জুটি ৬৭ রানের।

প্রথম সেশনে অভিষিক্ত মেহেদি হাসান মিরাজের জোড়া আঘাত দিয়ে শুরু। মাঝে আছেন দেশ সেরা বোলার সাকিব আল হাসান। লাঞ্চের পর আবার দুজনের ২ উইকেট। মানে ৫ উইকেটের ৩টি মেহেদির। ২টি সাকিবের। স্পিন বড় ভূমিকা রাখছে শুরুর দিন থেকেই। কিন্তু বাংলাদেশের এখন দরকার আরেকটি আঘাত। চা বিরতি থেকে ফেরার পর ইংল্যান্ডের লেজটা বের করে আনতে পারলে আজই হয়ত অল-আউট করা যাবে প্রতিপক্ষকে। এই ম্যাচ শুরুর আগে যা ভাবাও যায়নি।

সাব্বির রহমান, মেহেদি ও পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বির টেস্ট অভিষেক হলো আজ। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নতুন বলে শুরু করেন ১৮ বছরের অফ স্পিনার মেহেদি। ইংল্যান্ডকে প্রথম ধাক্কাটা দেন তিনি। অভিষিক্ত বেন ডাকেট (১৪) তার শিকার। পরের ওভারে সাকিব তুলে নেন অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুককে (৪)। ১৮ রানের সময় দুই ওপেনার আউট। ২১ রানের সময় মেহেদি ফেরান গ্যারি ব্যালান্সকেও।

এরপর ৬২ রানের জুটি মঈন ও জো রুটের। বিপজ্জনক রুটকে (৪০) লাঞ্চের পরের দ্বিতীয় ওভারেই শিকার করেন মেহেদি। কিছুক্ষণ পর বেন স্টোকস (১৮) সাকিবের শিকার। ওখান থেকে আবার মঈন নতুন করে শুরু করেন বেয়ারস্টোকে নিয়ে।


মন্তব্য