kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কার জায়গায় খেলবেন নাসির? প্রশ্ন বিসিবি প্রেসিডেন্টের!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ১৮:৫৭



কার জায়গায় খেলবেন নাসির? প্রশ্ন বিসিবি প্রেসিডেন্টের!

গত কয়েকমাস ধরে একটি প্রশ্ন অসংখ্যবার উচ্চারিত হয়েছে-নাসিরকে কেন দলে নেওয়া হচ্ছে না? ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গতকালের ম্যাচ অবিশ্বাস্যভাবে হেরে যাওয়ার পর সেই প্রশ্ন আরও জোরদার হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ছেয়ে গেছে একটা ইস্যুতেই।

আর সেটা হলো নাসির।

বাংলাদেশ দলের গ্রেট ফিনিশার হিসেবে খ্যাত এই অলরাউন্ডার সদ্য সমাপ্ত আফগানিস্তান সিরিজেও বসে ছিলেন। গতকাল টেল এন্ডারদের ব্যর্থতায় যেভাবে হারল বাংলাদেশ, তাতে নাসিরের অভাব ভীষণভাবেই অনুভব করছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। একের পর এক সিরিজে কিংবা টুর্নামেন্টে ১৪জনের দলে রাখা হয় নাসিরকে। কিন্তু অজানা কারণে তাকে মূল একাদশে দেখা যায়না। আজ শনিবার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি পাল্টা প্রশ্ন করেন, “কার জায়গায় খেলবেন নাসির?”

জাদুর কাঠির ছোঁয়ায় বদলে যাওয়া বাংলাদেশ দলে এখন জায়গা করে নেওয়া কঠিন-একথা যথার্থ। অসংখ্য প্রতিভাবান ক্রিকেটার দলে সুযোগ পাওয়ার অপেক্ষায় আছে। কিন্তু বিসিবি প্রেসিডেন্ট বললেন অন্য কথা।

তার ভাষায়, “নাসিরকে আনতে হলে সরাতে হবে মোশাররফ হোসেন রুবেলকে। মোশাররফ রুবেল কিন্ত এখানে শুধু বোলার হিসেবে আছেন। ওর কাছ থেকে কিন্তু আমরা অন্য কিছু আশা করিনি। যেটা দলের জন্য ভালো হয় ও সেটাই করবে। ”

ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে থাকা স্পিনার মোশারফ হোসেন আট বছর পর দলে ফেরার ম্যাচে আফগানদের বিপক্ষে ২৪ রানে ৩ উইকেট নেন।   কিন্তু ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ৩ ওভারে ২৩ রান দিয়ে উইকেটশুন্য থাকেন। দুই ম্যাচে তার রান যথাক্রমে ৪ এবং ৭*। সেই জায়গায় নাসির একজন জেনুইন ব্যাটসম্যান। তাকে পরিস্থিতি বিবেচনায় সহজেই ৭ কিংবা ৮ নাম্বারে ব্যাট করতে পাঠানো যায়।

বেশি দূরে না গিয়ে গত দেড় বছরের পরিসংখ্যান দেখলেই বোঝা যায় নাসির ধীরে ধীরে নিজেকে একজন দক্ষ অলরাউন্ডার হিসেবে গড়ে তুলেছেন। টেল এন্ডারে নেমে প্রবল চাপের মধ্যেও দলকে জয়ের বন্দরে নিতে নাসিরের জুড়ি নেই। তাকে পেলে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি একজন অফস্পিনার পেত বাংলাদেশ।

কিন্তু বিসিবি সভাপতি জানালেন, তিনি ‘বিকল্প বোলার’ নিয়ে ভাবছেন না।

৩৫ ইনিংসে বেশির ভাগ সময় অকেশনাল বোলার হিসেবে বল করেও ৪.৫৯ ইকোনমিতে ১৯ উইকেট নিয়েছেন নাসির। নিয়মিতভাবেই নিচের দিকে ব্যাট করা নাসির ৫৬ ম্যাচে ১ সেঞ্চুরিসহ করেছেন ১,২৩১ রান। চলতি বছর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগেও অল-রাউন্ড নৈপুণ্যে ভাস্বর ছিলেন। প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে ১৬ ম্যাচে ৭৫.৪২ গড়ে করেছিলেন ৫২৮ রান। ৬ ফিফটি সহ তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৯৬.৮৮!

তাহলে দ্বিতীয় ওয়ানডের টিম কম্বিনেশন কী হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, “কার বিরুদ্ধে কি করতে হবে আমরা তা নিয়ে কাজ করছি। যেটা ভালো মনে হয়, সেটাই করবো। আশা করি বাংলাদেশ দল এখন যে জায়গায় এসেছে, বারবার একই ভুল করবে না। ”

বিসিবি প্রেসিডেন্টের সুরে সুর মিলিয়েছেন ম্যানেজার সাবেক ক্রিকেটার খালেদ মাহমুদ সুজন। তার ভাষায়, “পরিবর্তন করলে আমরা জিতবো, পরিবর্তন না করলে জিতবো না এমনটা ঠিক নয় টেকনিক্যাল দিকগুলো আমাদের কোচ দেখবে। কোথায় কি দরকার তা অধিনায়কের সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেবে। ”

দলে নাসিরের অবস্থান সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “এটা নির্বাচক, কোচ ও অধিনায়কের ব্যাপার। অবশ্যই নাসির আমাদের পরিকল্পনায় আছে, যেহেতু ও ১৪ জনের দলে আছে। ”


মন্তব্য