kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কোহলির সেঞ্চুরিতে শক্ত অবস্থানে ভারত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:৩৭



কোহলির সেঞ্চুরিতে শক্ত অবস্থানে ভারত

ভারত তখন চাপে। নিউজিল্যান্ডের বোলিং তোপে ১০০ রানে পড়েছে ভারতের ৩ উইকেট।

ইন্দোরে বিরাট কোহলির ওপর খুব কি ভরসা করেছিলেন কেউ? অ্যন্টিগায় সেই যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০০ রানের ইনিংস খেললেন তারপর তো ভারত অধিনায়ক ৫ টেস্টে একটি ফিফটিও করতে পারেননি! কিন্তু রুখে দাঁড়িয়ে কোহলি করলেন তার ক্যারিয়ারের ১৩তম সেঞ্চুরি। কিউইদের বিপক্ষে সিরিজে প্রথম। আজিঙ্কা রাহানের সাথে চতুর্থ উইকেটে তার ১৬৭ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি হয়েছে। শেষ টেস্টের প্রথম দিনটা ভারত শেষ করেছে ৩ উইকেটে ২৬৭ রান নিয়ে।

কোহলি ১০৩ রানে অপরাজিত। রাহানে ৭৯ রানে নামবেন দ্বিতীয় দিনে। এই ম্যাচেই দুই বছর পর গৌতম গম্ভিরের ফেরা। আগের ম্যাচে শিখর ধাওয়ান সুযোগ পেলেন। তাই ফেরা হয়নি। ধাওয়ানের ইনজুরিতে আবার ভারতের জার্সি পরে ইনিংস ওপেন করতে নামলেন অভিজ্ঞ ওপেনার। দলের ২৬ রানের সময় হারালেন পার্টনার মুরালি বিজয়কে (১০)। কিন্তু ২টি ছক্কা ও ৩টি বাউন্ডারিতে প্রায় ঘণ্টা খানেক টিকে থাকা গম্ভির ভালো কিছুই ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। হতে দিলেন না ট্রেন্ট বোল্ট। পেসার এলবিডাব্লিউর ফাঁদে ফেলেছেন ২৯ রান করা গম্ভিরকে। পরের ইনিংসে দারুণ কিছু না করতে পারলে গম্ভিরের ফেরাটা এক ম্যাচেই সীমাবদ্ধ হয়ে থাকতে পারে।

চেতেশ্বর পুজারা ও কোহলি মিলে ৪০ রান যোগ করলেন। পুজারা ভালো খেলে চলেছেন। কিন্তু ৩৬তম ওভারে তাকে শিকার করে ফেললেন স্পিনার মিচেল স্যান্টনার। ৪১ রানে পুজারা নেই। ওয়াল হয়ে ওঠা রাহানে এসে যোগ দিলেন অধিনায়কের সাথে। তারপর দিনের বাকি ৫৬ ওভারে কিউই বোলারদের হতাশাই উপহার দিল কোহলি-রাহানে জুটি। এর মধ্যে ৩ ম্যাচের সিরিজে ২-০ তে জয় নিশ্চিত করেছে ভারত। এখন এটা কিউইদের হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর লড়াই।  


মন্তব্য