kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পাঁজরের হাড় ভেঙে গিয়েছিল; তবু ব্যাট চালিয়েছেন শচীন!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ১৩:২৮



পাঁজরের হাড় ভেঙে গিয়েছিল; তবু ব্যাট চালিয়েছেন শচীন!

তিনি শচীন টেন্ডুলকার। ক্রিকেট বিশ্বের জীবন্ত কিংবদন্তি।

বিশ্বের সব ভয়ঙ্কর বোলাররা তার সামনে খেই হারিয়ে ফেলতেন। ২৪ বছরের ক্যারিয়ারে ২২ গজে ঝড় বইয়ে দিয়েছেন। গড়েছেন রানের পাহাড়। কিন্তু মাস্টার-ব্লাস্টারের এই সাফল্যের মন্ত্র কী?

তার সাফল্যের মূলমন্ত্র হলো, তিনি কখনো বোলারকে নিজের দুর্বলতা বুঝতে দিতেন না। শুধু তাই নয়; শুক্রবার নয়াদিল্লীর এক অনুষ্ঠানে মাইক্রোফোন হাতে তিনি যা বললেন তা শুনে সবার মাথা খারাপ হওয়ার জোগার! একবার বোলারের বাউন্সারে তার পাঁজরের হাড় ভেঙে গিয়েছিল। কিন্তু বোলারকে তা মোটেই বুঝতে দেননি!

লিটল মাস্টারের ভাষায়, “নিজের দুর্বলতা বোলারকে কখনও বুঝতে না দেওয়াটাই বড় ব্যাপার। এক বার আমার পাঁজরে একটা বল জোরে এসে লাগার পর বোলার অনেকক্ষণ তাকিয়ে ছিল। আমিও ছাড়িনি। পাল্টা বোলারের দিকে তাকিয়ে ছিলাম। আঘাত এতটাই ছিল যে দম নিতে কষ্ট হচ্ছিল। কিন্তু সেটা বুঝতে দিইনি। ”

শচীন আরও বলেন, “বুঝতে পারছিলাম পাঁজরের হাড় ভেঙেছে। বেশ ভালই আঘাত লেগেছে। কিন্তু তাই বলে তো আর থেমে যাওয়া যায় না। ”

ক্রিকেটের এই মহানায়ক ২০০ টেস্টের ৩২৯ ইনিংসে করেছেন ১৫৯২১ রান। টেস্ট সেঞ্চুরির সংখ্যা ৫১ এবং হাফসেঞ্চুরি ৬৮। ৪৬৩ ওয়ানডের ৪৫২ ইনিংসে ব্যাট করে শচীন মালিক হয়েছেন ১৮৪২৬ রানের। ৪৯ সেঞ্চুরি এবং ৯৬ হাফসেঞ্চুরি করে টেস্টের মত ওয়ানডেতেও তিনি সবাইকে ছাড়িয়ে। টেস্ট-ওয়ানডে মিলিয়ে ‘সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি’ করার অনন্য রেকর্ডের মালিক তিনি। তার ধারে কাছে কেউ নেই।


মন্তব্য