kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মিয়াদাদ শহীদ হতে রাজি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ অক্টোবর, ২০১৬ ১৩:৫৯



মিয়াদাদ শহীদ হতে রাজি!

ক্রিকেট মাঠে ভারতের সাথে কখনো বনেনি জাভেদ মিয়াদাদের। ভারতও কখনো স্বাভাবিক ভাবে নিতে পারেনি তাকে।

ক্রিকেট মাঠের অতীতের সেই উত্তেজনা টেনে আনলেন পাকিস্তানের এই গ্রেট ক্রিকেটার। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আক্রমণ করেছেন। বলেছেন, তিনি শুধু নন পাকিস্তানের প্রত্যেকটি শিশুও প্রয়োজনে শহীদ হতে রাজি। তার এসব জ্বালাময়ী মন্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া এসেছে ভারত থেকে।

কাস্মির নিয়ে পাকিস্তানের সাথে যুদ্ধ যুদ্ধ অবস্থা ভারতের। গত সপ্তাহে লাইন অব কন্ট্রোলে ভারতের সার্জিকাল স্ট্রাইকের প্রসঙ্গে জ্বলে উঠেছেন মিয়াদাদ। পাকিস্তানের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে এ নিয়ে অনেক কথা বলেছেন সাবেক এই অধিনাযক। সেখানে মোদিকে 'মুডি' বলে সম্বোধন করেছেন। ভারতীয় প্রধামন্ত্রীকে 'পঁচা ডিম' বলে নিন্দা করেছেন। কোথা থেকে মোদি উঠে এসেছেন এবং তার গ্রহণযোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।

ভারতের বিখ্যাত সব সংবাদ মাধ্যম আরো মিয়াদাদের আরো কয়েকটি মন্তব্য বিশেষ ভাবে উল্লেখ করেছে।

"আমরা শহীদ হতে রাজি। আমাদের দেশ কারো ভুঁয়া হুমকিতে ভয় পায় না। "
"ভারত একটা ভীতু দেশ। ওরা সহজেই ভয় পেয়ে যায়। "
"বহু বছর আগে আমি তাদের ছক্কা হাঁকিয়েছিলাম। এখন ভিন্ন মাঠে তাদের ছক্কা হাঁকাতে হবে। "
"ভারতের উচিৎ মোদিকে ছুড়ে ফেলা। "
"পাকিস্তানের প্রত্যেকটা শিশু শহীদ হতে রাজি। "

যুদ্ধ পরিস্থিতিতে মিয়াদাদের এত জ্বালা ধরানো কথায় কিভাবে চুপ থাকে ভারত! ভারতের সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমান সংসদ সদস্য কির্তি আজাদ মিয়াদাদকে "রাস্তার লোক" বলে গাল দিলেন। বলেছেন, মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিমের মেয়ের সাথে যে নিজের ছেলেকে বিয়ে দিয়েছেন তিনি তো ডনের মতোই কথা বলবেন!

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট অনুরাগ ঠাকুর বলেছেন, "১৯৬৫, ১৯৭১ ও কারগিল যুদ্ধে হারের জ্বালা এখনো ভুলতে পারেনি পাকিস্তান। মিয়াদাদেরও ওখানেই জ্বালা। বিশ্বকাপের ইতিহাসে ভারতকে একবারও হারাতে পারেনি ওরা। " এর সাথে বিজেপির এই এমপির হুমকি, "দরকার হলে ভারত আবার পাকিস্তানকে ধুলোয় মিশিয়ে দেবে, সেটা লড়াইয়ের ময়দান হোক কিংবা ক্রিকেট মাঠ। "   


মন্তব্য