kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কলকাতা টেস্টকেও স্মরণীয় করে রাখতে চায় ভারত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:৩৩



কলকাতা টেস্টকেও স্মরণীয় করে রাখতে চায় ভারত

কানপুরে ঐতিহাসিক ৫শ’তম টেস্ট জয়ের পর কলকাতার ম্যাচকেও স্মরণীয় করতে চায় ভারত। কারণ এ ম্যাচ দিয়েই দেশের মাটিতে ২৫০তম টেস্ট খেলতে নামবে টিম ইন্ডিয়া।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে কলকাতার টেস্ট জিতে ২৫০তম ম্যাচকে স্মরনীয় করতে রাখার ইচ্ছা ভারতের। পাশাপাশি সিরিজ জয়ও নিশ্চিত করার লক্ষ্য স্বাগতিকদের। অন্যদিকে, সিরিজে ফেরার আশা নিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবে নিউজিল্যান্ড। কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে আগামীকাল থেকে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।
কানপুরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের প্রথম টেস্টটি ছিলো ঐতিহাসিক। কারন নিজেদের টেস্ট ইতিহাসে এটি ছিল ভারতীয় দলের ৫শ’তম ম্যাচ। জয় দিয়েই ঐতিহাসিক ম্যাচটি স্মরনীয় করতে পেরেছে বিরাট কোহলির দল। পুরো টেস্টে আধিপত্য বিস্তার করে খেলে ১৯৭ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে অশ্বিন-জাদেজারা। ফলে সিরিজ ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় ভারত।
পাঁচশতম টেস্ট সফল করার পর এবার আরও একটি ম্যাচকে স্মরনীয় করতে রাখার সুযোগ ভারতের সামনে। আর তা’হল- দেশের মাটিতে ২৫০তম ম্যাচ। দেশের মাটিতে কাল ২৫০শ’তম ম্যাচ খেলতে নামবে ভারত। আর এ ম্যাচকে স্মরনীয় করে রাখার ইঙ্গিত দিলেন কানপুর টেস্টের ম্যাচ সেরা রবীন্দ্র জাদেজা, ‘আগের টেস্টটি আমাদের জন্য স্মরনীয় ছিলো। ৫শ’তম টেস্ট ম্যাচ জয় দিয়ে উদযাপন করেছি আমরা। কাল আরো একটি মাইলফলকের ম্যাচ খেলতে নামবে দল। এ ম্যাচও জিতে স্মরনীয় করতে চাই ২৫০শ’তম টেস্টকে। ’
দেশের মাটিতে ২৫০ টেস্ট ম্যাচকে স্মরনীয় করে রাখার পরিকল্পনা ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলিরও। পাশাপাশি প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ডকে নিয়েও ভাবচ্ছেন তিনি। তাই দ্বিতীয় টেস্টেও নিউজিল্যান্ডের সকল পরিকল্পনা মোকাবেলা করার সামর্থ্য তার দলের আছে বলে জানান কোহলি, ‘প্রথম টেস্টে নিউজিল্যান্ড ভালো খেলেছে। অনেক পরিকল্পনা নিয়ে তারা খেলতে নেমেছে। আমরাও অনেক পরিকল্পনা নিয়ে খেলতে নেমেছিলাম। দ্বিতীয় টেস্টেও তাদের অনেক পরিকল্পনা থাকবে। তাদের সেইসব পরিকল্পনা সামাল দেয়ার সামর্থ্য আমাদের রয়েছে। তারপরও আমি মনে করি, পরিস্থিতি অনুযায়ী টেস্ট ক্রিকেট খেলতে হয়। সবসময় পরিকল্পনা অনুযায়ী সবকিছু হয় না। অনেক সময় ম্যাচের পরিস্থিতিকে অনেক পরিবর্তন আসে। তবে কলকাতা টেস্টে আমরা ভালো খেলার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবো। ম্যাচ জয়ই প্রধান লক্ষ্য আমাদের। ২৫০শ’তম ম্যাচ জিততে পারলে আরও একটি স্মরনীয় টেস্টের সাক্ষী হবো আমরা। ’
কানপুর টেস্ট হারলেও, সিরিজে ফেরার আত্মবিশ্বাসে চিড় ধরেনি নিউজিল্যান্ডের। কলকাতা টেস্টেই ঘুড়ে দাঁড়াতে চায় কিউইরা। এমনটাই ইঙ্গিত দিলেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তিনি বলেন, ‘কানপুর টেস্টে আমরা আশানুরুপ খেলতে পারিনি। তবে কলকাতা টেস্টে দল ভালো খেলবে বলে আমার বিশ্বাস। সিরিজে ফেরার লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবো আমরা। প্রতিপক্ষের বোলারদের সামলানোটাই আমাদের সামনে প্রধান চ্যালেঞ্জ। তা করতে পারলেই ব্যাটসম্যানরা বড় ইনিংস খেলতে পারবে। সিরিজের সমতা আনতে হলে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে আমাদের। ’
এদিকে দুই বছরের বেশি সময় পর ভারতের টেস্ট দলে ফিরলেন ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর। কানপুর টেস্ট খেলা ওপেনার লোকেশ রাহুল ইনজুরিতে পড়ায় কপাল খুলেছে গম্ভীরের। ভারতের হয়ে এখন পর্যন্ত ৫৬ টেস্টে ৪২.৫৮ গড়ে ৪০৪৬ রান করেছেন গম্ভীর। তবে সম্প্রতি দিলিপ ট্রফিতে দুর্দান্ত পারফরমেন্সের সুবাদে টেস্ট দলে ডাক পেলেন তিনি। ৩ ম্যাচে অংশ নিয়ে ৫ ইনিংসে ৩৫৬ রান করেন গম্ভীর।
এছাড়া কানপুর টেস্ট শুরুর আগে ইনজুরিতে পড়া পেসার ইশান্ত শর্মার পরিবর্তে দলে ডাকা হয়েছে স্পিনার জয়ন্ত যাদবকে। ইশান্তের জায়গায় দলে স্পিনার নেয়ার কারন হল, কানপুর টেস্টের পর আঙ্গুলে ব্যাথা অনুভব করছেন অফ-স্পিনার রবীচন্দ্রন অশ্বিন। তাই শেষ মুর্হুতে অশ্বিন কলকাতা টেস্ট খেলতে না পারলে, অভিষেক হতে পারে জয়ন্তর। প্রথম শ্রেনীতে ৪২ ম্যাচে ১১৭ উইকেট শিকার করেছেন ২৬ বছর বয়সী জয়ন্ত।
ভারত স্কোয়াড : বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রবীচন্দ্রন অশ্বিন, শিখর ধাওয়ান, গৌতম গম্ভীর, রবীন্দ্র জাদেজা, ভুবেনশ্বর কুমার, অমিত মিশ্র, মোহাম্মদ সামি, চেতেশ্বর পূজারা, আজিঙ্কা রাহানে, ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটরক্ষক), রোহিত শর্মা, মুরালি বিজয়, উমেশ যাদব ও জয়ন্ত যাদব।
নিউজিল্যান্ড স্কোয়াড : কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), ট্রেন্ট বোল্ট, ডগ ব্রেসওয়েল, মার্টিন গাপটিল, ম্যাট হেনরি, টম লাথাম, হেনরি নিকোলস, জিতান প্যাটেল, লুক রঞ্চি, মিচেল স্যান্টনার, ইশ সোধি, রস টেইলর, নিল ওয়াগনার, বিজে ওয়াটলিং (উইকেটরক্ষক)।


মন্তব্য