kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রুবেল বাদ, মোশাররফ বাংলাদেশ দলে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১১:১৬



রুবেল বাদ, মোশাররফ বাংলাদেশ দলে

দীর্ঘ আট বছর পর বাংলাদেশ জাতীয় দলে ফিরলেন বাঁ হাতি স্পিনার মোশাররফ হোসেন। আফগানিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডে খেলার জন্য তাকে দলে ডাকা হয়েছে।

রুবেল হোসেনকে বাদ দিয়ে ১৪ জনের দলে ঢোকানো হয়েছে তাকে। মোশাররফ শেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০০৮ সালে।

আফগানিস্তানের বিপক্ষ সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি হবে ১ অক্টোবর। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামেই ম্যাচ। সিরিজে এখন ১-১ এ সমতা। বুধবার রাতে নির্বাচকরা বৈঠকে বসেন। আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারা দ্বিতীয় ওয়ানডেতে এদিন মাত্র ৩ ওভার বল করেন ফাস্ট বোলার রুবেল। রান দেন ২৪। প্রথম ম্যাচের শেষ দিকে ভালো করেছিলেন। কিন্তু তারপরও ৯ ওভারে দিয়েছিলেন ৬২ রান।

৩৪ বছরের মোশাররফের ক্যারিয়ারটা উত্থাণ পতনে ভরা। ২০০৮ সালের মার্চে ক্যারিয়ারের তিনটি ওয়ানডে খেলেছেন। এরপর বিতর্কিত বিদ্রোহী ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লিগ বা আইসিএলে যোগ দেন। সেখান থেকে ফিরে ২০১০ সাল থেকে ঘরোয়া ক্রিকেটের শীর্ষ উইকেট শিকারীর তালিকায় নিয়মিত থাকেন মোশাররফ। তিন বছর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজে দলে ডাকা হয়েছিল তাকে। কিন্তু ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি।

২০১৩ সালে বিপিএল ম্যাচ পাতানো কেলেঙ্কারিতে প্রাথমিক ভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল মোশাররফকে। তদন্তে তার বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণ না মেলায় সেই অভিযোগ থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন। এই মৌসুমে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জের হয়ে ব্যাটে বলে পারফর্ম করেছেন মোশাররফ। তবে জুনে বাজে আচরণের জন্য এক ম্যাচে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। আগস্টে আন্তর্জাতিক মৌসুমের শুরুতে প্রায় হঠাৎ করেই তাকে ৩০ সদস্যের প্রাথমিক দলে রাখা হয়।

তৃতীয় ওয়ানডের জন্য বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মোসাদ্দেক হোসেন, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদ উল্লাহ, সাব্বির রহমান, তাইজুল ইসলাম, নাসির হোসেন, তাসকিন আহমেদ, শফিউল ইসলাম ও মোশাররফ হোসেন।  


মন্তব্য