kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মেসিকে ছাড়া বার্সেলোনার আরেকটি জয়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১০:২৮



মেসিকে ছাড়া বার্সেলোনার আরেকটি জয়

লিওনেল মেসি নেই। খেলাটা দেশের বাইরে।

আবার সেই খেলায় পিছিয়েও পড়ল বার্সেলোনা। কিন্তু সব কিছু জয় করে দারুণ খেলে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। শেষ পর্যন্ত জার্মানি থেকে ফেরে জয় নিয়ে। গেল রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে কাতালানরা ২-১ গোলে হারিয়েছে বরুসিয়া মনশেনগ্লাডবাচকে। গ্রুপের শীর্ষেই তারা। তবে একই রাতে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি ৩-৩ গোলে ড্র করেছে সেল্টিকের সাথে। পয়েন্ট টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে ম্যানসিটি।

চেলসি মিডফিল্ডার ইডেন হ্যাজার্ডের ছোট ভাই থরগান হ্যাজার্ড। গ্লাডবাচের পক্ষে প্রথমার্ধেই এই ছোট হ্যাজার্ড গোল করে বসেন। পিছিয়ে পড়া বার্সেলোনা ম্যাচে ফেরে শেষের ২৫ মিনিটে। এই সময়ে আরদা তুরান ও জেরার্ড পিকের গোলে জয় নিশ্চিত করে তারা। আগরে ম্যাচেই কিন্তু স্প্যানিশ ক্লাবটি নু ক্যাম্পে ৭-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল স্কটিশ ক্লাব সেল্টিককে।

ইনজুরির কারণে মেসি বাইরে। বার্সেলোনার কোচ লুই এনরিক নেইমার ও লুই সুয়ারেসের সাথে খেলালেন পাকো আলকাসেরকে। কিন্তু স্বাগতিক দলটি নেইমার ও সুয়ারেসের পায়ে সেভাবে বলই রাখতে দেয়নি। বরুসিয়া পার্কে নিজেদের প্রথম বিপজ্জনক আক্রমণেই গোল তুলে নেয় গ্লাডবাচ। রাফায়েল থেকে মাহমুদ দাউদ। সেখান থেকে হ্যাজার্ড এবং গোল।

এভাবেই ঘণ্টা পেরোয়। এই সময় ইভান রাকিতিচের জায়গায় মাঠে নামেন তুরান। পাঁচ মিনিট পরই গোল! ক্রামারকে ছিটকে ফেলে নেইমার গ্লাডবাচের ডিফেন্স ভাঙা বল তুলেছিলেন। ৬৫ মিনিটের ঘটনা। তুরান সেই বলকে জাল চিনিয়েছেন। এর ৯ মিনিট পরই বার্সার জয়সূচক গোলটি আসে। নেইমারের নেওয়া কর্নারের বল পেয়েছিলেন সুয়ারেজ। তার প্রচণ্ড শট ঠেকান গোলকিপার। ফিরে আসা বল খুব কাছ থেকে জালে জড়িয়েছেন পিকে।


মন্তব্য