kalerkantho


জুটি গড়ার চেষ্টায় তামিম ও সৌম্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:০২



জুটি গড়ার চেষ্টায় তামিম ও সৌম্য

বিপদের মধ্যে বসবাস! সৌম্য সরকারের ব্যাটিং দেখে এমনটা মনে হত বাধ্য। বড় বড় দলের বিপক্ষে এই তরুণ সাহস দেখিয়ে ব্যাট করেছেন। কিন্তু আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের প্রথম ওভারে আউট হয়েছিলেন। দ্বিতীয় ম্যাচে শুরুটাও নড়বড়ে। আগের ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করেছে টাইগাররা। এবার শততম ওয়ানডে জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করার ম্যাচে টস হরে ব্যাট করছে তারা। এই রিপোর্ট লেখার সময় ৭ ওভারের খেলা শেষ হয়েছে। কোনো উইকেট না হারিয়ে টাইগারদের সংগ্রহ ৩২ রান। তামিম ইকবাল (১৭) ও সৌম্য (১০) জুটি গড়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ম্যাচ জিতলেই সিরিজ জয় নিশ্চিত স্বাগতিকদের।

মিরপুরে অভিষেক হয়েছে মোসাদ্দেক হোসেনের। ২০ বছরের ব্যাটসম্যান এই সময়ে ঘরোয়া ক্রিকেটের পারফর্মারদের মধ্যে সেরা। ডান হাতি মোসাদ্দেক সুযোগ পেয়েছেন অভিজ্ঞ ইমরুল কায়েসের জায়গায়। ১৮ ম্যাচের ক্যারিয়ারে তিনটি ফার্স্ট ক্লাস ডাবল সেঞ্চুরি টিনএজ পেরুনো মোসাদ্দেকের। সেঞ্চুরি সাতটি। গড় ৭০ এর বেশি। গত নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি অভিষেকে অবশ্য ১৫ রান করেছিলেন মাত্র। এই মৌসুমে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর পক্ষে ১৪ ম্যাচে ৭৭.৭৫ গড়ে ৬২২ রান করেছেন মোসাদ্দেক। প্রথম আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে কি করেন সেটাই দেখার আগ্রহ এখন সবার।  

এটা বাংলাদেশের ওয়ানডেতে সেঞ্চুরি জয় তুলে নেওয়ার ম্যাচ। এর আগে ১৯৮৬ থেকে এই পর্যন্ত ৩১৩টি ওয়ানডেতে ৯৯টি জয় টাইগারদের। গত দেড় বছরে অবশ্য দুর্দান্ত ফর্মে তারা। আজ জিতলে টানা ৫ সিরিজ জয়ের রেকর্ডও হয়ে যাবে। পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকার পর জিম্বাবুয়েকে সিরিজ হারিয়েছে বাংলাদেশ। এখন এক ম্যাচ হাত রেখেই আফগানদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পালা।

প্রথম ওয়ানডেটা এই একই ভেন্যুতে খুব উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। ওই ম্যাচের শেষদিকে সাকিব আল হাসান ও তাসকিন আহমেদের অসাধারণ পারফরম্যান্স প্রায় হারা ম্যাচ জিতিয়েছে টাইগারদের। জয়টি ছিল ৭ রানের।  

বাংলাদেশ একাদশ : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদ উল্লাহ, সাব্বির রহমান, তাইজুল ইসলাম, রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদ।

আফগানিস্তান একাদশ : মোহাম্মদ শাহজাদ, নওরোজ মঙ্গল, রহমত শাহ, আসগার স্তানিকজাই (অধিনায়ক), হাশমাতুল্লা শাহিদি, নাজিবুল্লা জাদরান, মোহাম্মদ নবি, রশিদ খান, মিরওয়াইস আশরাফ, দৌলত জাদরান, নাভিন-উল-হক।


মন্তব্য