kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জিদানের সামনে রোনালদোর প্রমাণের লড়াই!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:১৮



জিদানের সামনে রোনালদোর প্রমাণের লড়াই!

পরিবার নিয়ে গালি আগেও খেয়েছেন জিনেদিন জিদান। সেবার ২০০৬ বিশ্বকাপের ফাইনালে ইতালির মার্কো মাতেরাজ্জির বুকে ঢুস দিয়ে মাঠে ফেলে দিয়েছিলেন।

বোনকে নিয়ে বাজে কথা বলেছিলেন মাতেরাজ্জি। এবার ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো মাঠ ছাড়তে ছাড়তে কোথায় যেতে বলেছিলেন তা অনুমান করা যায়। আরো কি গালি ছিল? সে না নাইবা শুনলেন। জবাবটা তখন না দিয়ে ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে দিয়েছিলেন জিনেদিন জিদান। তার সাফ কথা, পুরো ম্যাচে খেলার সুযোগ না পাওয়ার অভ্যাস গড়তে হবে রোনালদোকে। তারও বদলী নামবে দরকারে।

আজ মঙ্গলবার বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের সাথে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ। জার্মানিতে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের পারফরম্যান্সে রোনালদো-জিদান দ্বন্দ্বের প্রভাব পড়বে না তো? লাস পালমাসের বিপক্ষে লিগে আগের ম্যাচের মিনিট বিশেক বাকি থাকতে রোনালদোকে তুলে নিয়েছিলেন জিদান। সেটা সইতে না পেরে মাঠেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন রোনালদো।

জিদান অবশ্য পরে এও বলেছেন, রোনালদোর ভালোর জন্যই তার এই সিদ্ধান্ত। কিন্তু ৩১ বছরের রোনালদো কি হুমকিতে না? গত মৌসুমের শেষের দিকে ইনজুরিতে পড়েছিলেন। তার আগে টানা পুরো ম্যাচ খেলেছেন প্রতিটিতে। ফিরে আবার তাই। কিন্তু ইউরোর ফাইনাল থেকে টেনে আনা হাঁটুর ইনজুরির কারণেই এখন মূল্য গুনতে হচ্ছে রোনালদোকে।

অন্য কোচ হলে কি হতো কে জানে। কিন্তু জিদান তো আলাদা ধাতুতে গড়া। ফ্রান্স ও রিয়ালের কিংবদন্তি। তার আছে বিশ্বকাপ, ইউরো এবং ক্লাব ফুটবলের সব শিরোপা জেতার ইতিহাস। বিশ্বের সেরা ছিলেন। সবচেয়ে মূল্যবানও ছিলেন। রোনালদোর সাথে টক্কর দেওয়ার মতোই ম্যানেজার বটে। সুতরাং, রোনালদোকেও এখন তাই অনেক কিছু মেনে নিতে হচ্ছে। সেই সাথে তক্কে তক্কে থাকতে হচ্ছে। তিনি যে সাধারণ কেউ নন, এখনো যে সুপার হিউমান সেই প্রমাণ দেওয়ার সুযোগ কি আর ছাড়বেন তিনবারের ব্যালন ডি'অর জয়ী ফুটবলার! তার যে আত্মসম্মানে লেগেছে!


মন্তব্য