kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে সিরিজ জিতল পাকিস্তান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:০০



বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে সিরিজ জিতল পাকিস্তান

সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্বে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পাকিস্তান এক নতুন যুগ শুরু করেছে। এখন পর্যন্ত যা সাফল্যের।

নতুন এই অধিনায়কের অধীনে টানা তিন ম্যাচ জিতল পাকিস্তান। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৬ রানে হারিয়ে ১ ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ জিতে নিল তারা। দুবাইয়ে শনিবার আগে ব্যাট করে ৪ উইকেটে ১৬০ রান করেছিল পাকিস্তান। ক্যারিবিয়ানদের এরপর ৯ উইকেটে ১৪৪ রানে থামিয়েছে।

এর আগে ২৭ ম্যাচের ২৪টি পাকিস্তান জিতেছে ১৫০ এর বেশি রান ধরে রেখে। দুবাইয়ের এই ভেন্যুর প্রথম ইনিংস গড়ের চেয়ে ২২ রান বেশি করলো তারা। তার মানে এখানে জিততে হলে রেকর্ড গড়ে জিততে হতো কার্লোস ব্রাথওয়েটের দলকে। পারেনি। ১৭ রান কম পড়েছে। এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের ব্যর্থতার পর শহীদ আফ্রিদি নেতৃত্ব ছাড়েন। নতুন দায়িত্বে আসা সরফরাজ মাত করছেন।

পাকিস্তানের টপ অর্ডার প্রথম ম্যাচের পর এদিনও ভালো করেছে। শারজিল খান অবশ্য ২ রানে আউট। খালিদ লতিফ ৪০ রান করলেন। বাবর আজম আগের ম্যাচে ফিফটি করেছিলেন। এবার ১৮ রান তার। তবে খেলাটা পরে গড়ে দিয়েছে অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক ও সরফরাজের ব্যাটিং। চতুর্থ উইকেটে ৬৯ রানের জুটি গড়েছেন তারা। ২৮ বলে ৩৭ রান মালিকের। আর ৩২ বলে ৪৬ রানে অপরাজিত সরফরাজ।

বোলারদের দায়িত্ব ছিল ম্যাচ জেতানোর। সেটা খুব ভালো ভাবে করেছেন তারা। অভিজ্ঞ পেসার সোহেল তানভির ৪ ওভারে ১৩ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন। নতুন বলে তার এই কীর্তির পরও অবশ্য ম্যাচের সেরা সরফরাজ। তরুণ ফাস্ট বোলার হাসান আলি ৩ উইকেট নিয়েছেন। তবে রান দিয়েছেন ৪৯। আগের ম্যাচে ৫ উইকেট নেওয়া স্পিনার ইমাদ ওয়াসিমের শিকার ১ উইকেট। ৯ নম্বরে নেমে ক্যারিবিয়ানদের ইনিংস সর্বোচ্চ রান করেছেন মাত্র দ্বিতীয় ম্যাচ খেলা নিকোলাস পুরান। ২৯ রান আন্দ্রে ফ্লেচারের। ১৮ করে রান ডোয়াইন ব্রাভো ও কাইরন পোলার্ডের।


মন্তব্য