kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গার্লফ্রেন্ড কেসিকেই বিয়ে করবেন বোল্ট তবে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:২০



গার্লফ্রেন্ড কেসিকেই বিয়ে করবেন বোল্ট তবে...

গার্লফ্রেন্ড কেসি বেনেটকেই বিয়ে করবেন উসাইন বোল্ট। তবে এখনই না।

বাবাও হতে চান আরো পরে। এখন ক্যারিয়ারের শেষ দিকে এসে ভবিষ্যৎ আরো সুনিশ্চিত করা নিয়েই যতো চিন্তা বিশ্ব ইতিহাসের সেরা স্প্রিন্টারের।

রিও অলিম্পিকের পর বোল্টের উদযাপন নিয়ে ঝড় বয়ে গেল। ব্রাজিলিয়ান নারীর সাথে বিছানায় যাওয়া, লন্ডনে টানা এক সপ্তাহের প্রতি রাতে এক দল নারী নিয়ে নাইট ক্লাব ও হোটেলে পার্টি। আরো কতো কি। রব উঠেছিল, জ্যামাইকান কার্নিভাল গার্ল কেসির সাথে বোল্টের সম্পর্কটা গেল গেল। কিন্তু কোথায় কি? দেশে ফিরে কেসিকে নিয়ে ছুটি কাটিয়েছেন চুটিয়ে। কেসি যে তার ইতিহাস বিখ্যাত বয়ফ্রেন্ডকে মাফ করে দিয়েছেন তা স্পষ্ট। রোমান্টিক কতো ছবিও না প্রকাশ পেল তার পর।

এবার একটি সাক্ষাৎকারে বিয়ের ভাবনাও বললেন অলিম্পিকে 'ট্রিপল ট্রিপল' এর ইতিহাস গড়া বোল্ট। ৩০ বছরের জ্যামাইকান কিংবদন্তি আগামী বছর লন্ডনের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের পর আর দৌড়াতে চান না। সবই ঠিক আছে। কিন্তু আলোচিত বিয়েটা কবে? কেসির সাথে তার সম্পর্কের ব্যাখ্যাও বা কি?

শুনুন বোল্টের মুখেই, "কেসি এই সম্পর্ক নিয়ে খুব খুশি। আমিও তাই। সত্যি সত্যিই এই সম্পর্ক নিয়ে আমরা সিরিয়াস। তবে সম্পর্ক নিয়ে খুব বেশি তাড়াহুড়ো করতে চাই না। ধীরে ধীরে এগোতে চাই। তবে এখনই বিয়ে বা সন্তানের কথা আমরা ভাবছি না। হ্যাঁ, আমিও চাই আমাদের পরিবার হোক। সুখের সংসার হোক। এতগুলো বছর অপেক্ষা করেছি, সঠিক জীবনসঙ্গীনিকে খুঁজতে। এখন কেরিয়ার নিয়ে ব্যস্ত। ভবিষ্যত সুনিশ্চিত করতেই এখন কেরিয়ারের দিকে মন দিয়েছি। আমার বাবা–মাও অনেকদিন ধরে একে–অন্যকে চিনতেন। বুঝে, শুনে ওঁরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। আমিও সেটাই চাই। " বাবা-মা বিয়ে করেছিলেন বলে বিয়ের বিষয়টাতে আগ্রহ আছে স্প্রিন্টারের।

অলিম্পিকে আসলেই আর অংশ নেবেন না? বোল্টের সোজা জবাব, 'না'। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপই কি শেষ? বোল্টের জবাব, "আমার সেটাই ইচ্ছে। তবে কোচের ভাবনা একটু আলাদা। উনি বিশ্বাস করেন, আমার মধ্যে এখনও আগুন আছে।   আমি আরও কিছু করতে পারি। উনি আমাকে বলেছেন, 'মৌসুমের শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করো, তারপর সিদ্ধান্ত নিও। '‌ কিন্তু আমার মন চাইছে, এবার থামতে। অবসর নিতে। "


মন্তব্য