kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টেস্ট শাসকের দণ্ড এখন মিসবাহর হাতে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৪:০৮



টেস্ট শাসকের দণ্ড এখন মিসবাহর হাতে

টেস্টে বিশ্বে তারা এক নম্বর। আর তার স্বীকৃতি হিসেবে রাজদণ্ডটা তো পেতে হবে।

তাহলেই না ষোলকলা পূর্ণ হয়! সেটা হলো এবার। বুধবার আইসিসির পক্ষ থেকে পাকিস্তানের অধিনায়ক মিসবাহ-উল হকের হাতে তুলে দেওয়া হলো টেস্ট শাসকের দণ্ড। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ দণ্ড।

সম্প্রতি ভারতকে সরিয়ে টেস্ট বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বর দল হয়েছে পাকিস্তান। এই প্রথম তারা এই অবস্থানে এল। ইংল্যান্ডের সাথে ২-২ এ টেস্ট সিরিজ ড্র করার পর মিসবাহর দল হয়ে যায় বিশ্বের সেরা। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন এই উপলক্ষ্যে গেছেন পাকিস্তানে। বুধবার লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে তিনি মিসবাহর হাতে তুলে দেন টেস্ট শ্রেষ্ঠত্বের দণ্ড।

২০০৯ সালের পর পাকিস্তান দেশে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ পায় না। হোম সিরিজ খেলে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। সেই বছর লাহোরে খেলতে আসার পথে শ্রীলঙ্কা দল সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়। এরপর থেকে আর কোনো আন্তর্জাতিক দল পাকিস্তান সফরে যায় না। আমিরাতে খেলা ছাড়া পাকিস্তানের আরো আছে অ্যাওয়ে সিরিজ। দেশের দর্শকদের সমর্থন ছাড়া এক নম্বর হওয়াও যে বিশেষ কৃতিত্বের তাই বললেন মিসবাহ।

"টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে ১ নম্বর হওয়ার চেয়ে ভালো কিছু আর হতে পারে না। আমার জীবনের সেরা সময় কাটছে। ক্রিকেট জীবনের সবচেয়ে সুখের দিন। সাত বছর আগে যে মাঠে আমরা শেষ টেস্ট খেলেছি সেখানেই এই আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ দণ্ড গ্রহণের চেয়ে ভালো কিছু হতেই পারে না। " মিসবাহ আবেগ আক্রান্ত হয়েছেন। বলছিলেন, "এটা বড় মানসিকতার পরিচয় খেলোয়াড় ও সমর্থকদের জন্য। কারণ আমরা পাকিস্তানের বাইরে খেলেই এক নম্বর হয়েছি। খেলোয়াড়রা ঘরের দর্শকদের সমর্থন পায়নি। অনেক ভালো দল ও ভালো খেলা সরাসরি দেখতে পারেননি দর্শকরা। আমি আত্মবিশ্বাসী যে এর পরিবর্তন হবে। শিগগিরই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরবে। "

তবে মিসবাহদের সামনে আরো কঠিন চ্যালেঞ্জ। এই ১ নম্বর অবস্থান ধরে রাখাও কম কঠিন না। ভারত দেশের মাটিতে শুরু হতে যাওয়া তিন ম্যাচের সিরিজে নিউজিল্যান্ডকে হারালেই এক নম্বর হয়ে ফিরবে আবার। আমিরাতে অক্টোবরে পাকিস্তানের পরবর্তী সিরিজ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে। ২০১৭ সালে ১ এপ্রিলে ১ নম্বরে থাকা দলটি আইসিসির কাছ থেকে পাবে ১০ লাখ ডলার পুরস্কার।


মন্তব্য