kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মরিনহোর বিরুদ্ধে ক্ষোভে জ্বলছেন খেলোয়াড়রা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:৩৫



মরিনহোর বিরুদ্ধে ক্ষোভে জ্বলছেন খেলোয়াড়রা!

এটাকে কি ড্রেসিংরুমের সাথে কোচ হোসে মরিনহোর লড়াই বলা যায়? তার মানে লড়াইটা তো দলের সব খেলোয়াড়ের সাথেই। কোচ হয়ে খেলোয়াড়দের সাথে লড়াই! শুনতে বেখাপ্পা।

তাহলে শুনুন ঘটনা। 'দ্য স্পেশাল ওয়ান' মরিনহো প্রকাশ্যে তার খেলোয়াড়দের সমালোচনা করতে শুরু করেছেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এলিট খেলোয়াড়রা তা মানবে কেন! তাদের মধ্যে জ্বলে উঠেছে ক্ষোভের আগুন।

রবিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৩-১ গোলে হেরেছে ওয়াটফোর্ডের কাছে। ৮ দিনের মধ্যে এটি তৃতীয় হার ইউনাইটেডের। এটাই সহ্য করতে পারেননি পর্তুগিজ মরিনহো। খেলোয়াড়দের মানসিকতার তীব্র সমালোচনা করেছেন প্রকাশ্যে। ডিফেন্ডার লুক শকে তার ভুলে গোল হজম করার জন্য তুলোধুনো করেছেন। ওই গোলের দুই মিনিট পর তাকে মাঠ থেকেও তুলে নেন কোচ। এতে শয়ের সাথে অন্য খেলোয়াড়রা ধাক্কা খেয়েছেন।

এখন শোনা যাচ্ছে অধিনায়ক ওয়েন রুনিকে সামনের শনিবার লিস্টার সিটির বিপক্ষে না খেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মরিনহো। এটা ইংল্যান্ডের অধিনায়কের বাজে পারফরম্যান্সের খেসারত। ইউনাইটেডের খেলোয়াড়দের অসন্তোষের প্রসঙ্গ টেনে একটি ক্লাব সূত্র জানিয়েছে, "মরিনহোকে নিয়ে যে মোহ ছিল তা কেটে গেছে। এ যেন আরেকজন কোচের অধীনেই খেলা শুধু। ফার্গি কখনো প্রকাশ্যে কিছু বলতেন না। তিনি দলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখতেন সব। "

স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের দীর্ঘ সময়ে অনেক সাফল্য ইউনাইটেডের। চেলসি থেকে গত বছর বরখাস্ত হয়ে পরে উইনাইটেডের দায়িত্ব পেয়েছেন মরিনহো। কিন্তু তিনি ঠোটকাটা। বিবিসি তার এই প্রকাশ্যে খেলোয়াড়দের সমালোচনা করা নিয়েই বড় প্রতিবেদন করেছে। প্রশ্ন, এভাবে সবার সামনে খেলোয়াড়দের সমালোচনা করা ঠিক কি না। মরিনহো মনে করিয়ে দিয়েছেন, সামনেই জানুয়ারির ট্রান্সফার উইন্ডো। ক্লাবে থাকতে হলে সেই কথা মনে রাখতে হবে খেলোয়াড়দের।


মন্তব্য